kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রহমতের হাফ সেঞ্চুরি, কিছুটা স্বস্তি আফগান শিবিরে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৩:৪৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রহমতের হাফ সেঞ্চুরি, কিছুটা স্বস্তি আফগান শিবিরে

ফাইল ছবি

ম্যাচের ৩২তম ওভারের চতুর্থ বলে আফগানিস্তানের তৃতীয় উইকেটের পতনের পর লাঞ্চ ব্রেকে চলে যায় দুই দল। তাইজুলের স্পিন ঘূর্ণিতে প্রথম দুই উইকেটের পতনের পর ছোবল হানেন মাহমুদউল্লাহ। নিজের প্রথম ওভারের চতুর্থ বলে এক রানের বিনিময়ে শাহিদীর উইকেটটি তুলে নেন তিনি। তবে আশা জাগিয়ে ক্রিজে ব্যাট চালিয়ে যাচ্ছেন রহমত শাহ। বাংলাদেশের স্পিন ঘূর্ণির মাঝেও টিকে থেকে হাফ সেঞ্চুরি করলেন। এখন ৯৬ তার সংগ্রহ ৫২ রান। তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন আজগর আফগান। 

৮৩ বলে রহমত শাহ'র সংগ্রহ ছিল ৪৯। এর একটি রানের অপেক্ষা। ক্রিজে ব্যাট হাঁকাচ্ছিলেন আজগর আফগান। টিকে থাকা রহমতের হাফ সেঞ্চুরিটা কিছুটা স্বস্তি ও আত্মবিশ্বাসের বৃষ্টিতে ভেজাবে আফগান শিবিরকে। কিন্তু তার আগেই চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নামলো আকাশের বৃষ্টি। ৪১ ওভার শেষে ৩ উইকেটে ১০৫ রানের মাথায় খেলা বন্ধ হয়ে যায়। এ অবস্থায় সফররতদের পক্ষে থেকে আকর্ষণটা টিকিয়ে রেখেছিলেন রহমত।

দলের ৭৭ রানের মাথায় মাহমুদউল্লার বলে শাহিদীকে হারানোর পর ক্রিজে নামের আজগর। মোটামুটি ৪০ স্ট্রাইক রেটে ম্যাচের ৪০তম ওভারে তার ব্যক্তিগত সংগ্রহ ২৭ বলে ১০ রান। অন্যদিকে রহমত শাহ'র ব্যাটে কিছুটা ঝড় ছিল। ৩টি চার ও ২টি ছক্কার মার রয়েছে। তার স্ট্রাইক রেট ৫৯.০৪।  

এর আগে ২৪তম ওভারের প্রথম বলে দ্বিতীয় উইকেট পায় বাংলাদেশ। কৃতিত্ব তাইজুলের। এই বাঁহাতি স্পিনের বলে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ তুলে দেন ইব্রাহিম জারদান। বাঁহাতির দারুণ এক স্পিন ডেলিভারিতে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। আফগান টিমের ইহসানউল্লাহ ৩৬ বলে ৯ রান করে ফিরে যান। তখন আফগানিস্তানের সংগ্রহ ১২.২ ওভারে ১৯ রান। 

এবারের বাংলাদেশ টিমকে বৈচিত্র্যপূর্ণ বলাই যায়। কারণ একাদশে কোনো পেসার নেই। নেই কোনো বিশেষজ্ঞ ফাস্ট বোলার। পেসারের কাজ চালাতে সৌম্য সরকারের ওপরই ভরসা। এদিকে, সাকিব আল হাসানসহ একাদশে আছেন চারজন স্পিনার। পাশাপাশি স্পিন করার মতো আছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন ও মুমিনুল হক।

বাংলাদেশ একাদশ
সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম উইকেট কিপার), সাকিব আল হাসান (ক্যাপ্টেন), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাস, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান, মোসাদ্দেক হোসেইন।

আফগানিস্তানের একাদশ
ইহসানউল্লাহ, ইব্রাহিম জাদরান, রহমত শাহ, হাশমতউল্লাহ শাহিদী, আজগর আফগান, মোহাম্মদ নবী, আফসার জাজাই (উইকেট কিপার), রশিদ খান (ক্যাপ্টেন), ইয়ামিন আহমাদজাই, কায়েস আহমেদ, জহির খান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা