kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ফিফা বর্ষসেরার শর্টলিস্টে মেসি-রোনালদো-ফন ডাইক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফিফা বর্ষসেরার শর্টলিস্টে মেসি-রোনালদো-ফন ডাইক

ছবি : ফিফা

আবারও এসে গেল ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কারের মুহূর্ত। ২০১৯ 'দ্য বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার' পুরস্কার জয়ের দৌড়ে আছেন লিওনেল মেসি, ক্রিশ্চি য়ানো রোনালদো ও ভার্জিল ফন ডাইক। আজ সোমবার তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে ফিফা। জাতীয় দলের কোচ, অধিনায়ক, বিশ্বজুড়ে ফিফা নির্বাচিত সাংবাদিক ও ফিফা ডটকমে নিবন্ধন করা ফুটবলপ্রেমীদের ভোটে বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করা হয়। আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর লন্ডনে ‘দ্য বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

জাতীয় দলে ভালো না খেললেও বার্সেলোনার হয়ে গতবার দারুণ একটা মৌসুম কাটিয়েছেন মেসি। প্রিয় ক্লাবকে জিতিয়েছেন লা লিগা শিরোপা। এছাড়া চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে ও কোপা দেল রের ফাইনালে ওঠাতেও বড় অবদান ছিল আর্জেন্টাইন তারকার। লা লিগায় সর্বোচ্চ ৩৬ গোল করে একই সঙ্গে জিতে নেন পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু। চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও করেন সর্বোচ্চ ১২ গোল। ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫৮ ম্যাচ খেলে ৫৪ গোল করেন মেসি।

অন্যদিকে জুভেন্তাসের হয়ে প্রথম মৌসুম দারুণ কেটেছে রোনালদোর। দলের টানা অষ্টম সিরি আ শিরোপা জয়ে বড় অবদান রেখেছেন। গত মৌসুমে সিরি আ'তে ২১টিসহ সব প্রতিযোগিতা মিলে ক্লাবের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৮ গোল করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। গত মৌসুমে সিরি আ'র সবচেয়ে মূল্যবান খেলোয়াড়ও নির্বাচিত হন পর্তুগিজ তারকা। জাতীয় দলের হয়েও মৌসুমটা দারুণ কেটেছে রোনালদোর। গত মাসে তার নেতৃত্বে উয়েফা নেশন্স লিগ জিতে পর্তুগাল। সেমি-ফাইনালে দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা।

শর্টলিস্টের নতুন নাম ফন ডাইক। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে সাউথ্যাম্পটন থেকে লিভারপুলে যোগ দেওয়া এই ফুটবলার স্বপ্নের মতো একটা মৌসুম কাটিয়েছেন। ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে এই সময়ে ৫৯টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের গত আসরে সবচেয়ে কম ২২ গোল হজম করে লিভারপুল। দলের রক্ষণ কতটা শক্তিশালী হলে এমন হতে পারে, তার প্রমাণ ডাইক। আক্রমণেও ভূমিকা ছিল তার; ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে এসময়ে ৯টি গোল করার পাশাপাশি চারটিতে অবদান রাখেন তিনি। ইউরোপা নেশন্স লিগে নেদারল্যান্ডসকে ফাইনালে তোলায় বড় অবদান ছিল ফন ডাইকের। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা