kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

একাদশ নিয়ে মধুর সমস্যায় অস্ট্রেলিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একাদশ নিয়ে মধুর সমস্যায় অস্ট্রেলিয়া

ছবি : ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ টেস্টের সেরা একাদশ নির্বাচন করা নিয়ে মধুর সমস্যায় পড়েছেন অস্ট্রেলিয়া নির্বাচকরা। দ্বিতীয় ম্যাচে মাথায় বলের আঘাত পাওয়া থেকে সুস্থ হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। তার অনুপস্থিতিতে দলে সুযোগ পেয়েই নিজের জাত চেনান মার্নাস লাবুশেন। তিন ইনিংস ব্যাট করার সুযোগ পেয়েই সবগুলোতেই হাফ-সেঞ্চুরি করেছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। তাই স্মিথের ফেরা, লাবুশেনের দুর্দান্ত ফর্মের কারণে অ্যাশেজ সিরিজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চতুর্থ টেস্টের আগে একাদশ নির্বাচন নিয়ে মহা-চিন্তায় পড়ে গেছে অজি নির্বাচকরা।

প্রধান নির্বাচক ট্রেভর হন্স বলেন, 'স্মিথ হলো প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। দলে তার সুযোগ পাওয়া নিয়ে কোনো সমস্যাই নেই। কিন্তু স্মিথের পরিবর্তে সুযোগ পেয়েই চমক দেখিয়েছেন লাবুশেন । লর্ডসের পর লিডসেও বড় স্কোর করেছে সে। প্রতিটি ক্ষেত্রেই ভালো করেছেন এবং তাকে দেয়া প্রতিটি সুযোগের সর্বাধিক ব্যবহার করেছেন।'

লর্ডসে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডের পেসার জোফরা আর্চারের দ্রুতগতির এক ডেলিভারিতে মাথার পেছনে ঘাড়ে বলের আঘাত পান স্মিথ। সাথে-সাথেই মাঠ ছাড়েন তিনি। তখন তার নামের পাশে ৮০ রান লেখা ছিলো। পরে ব্যাট হাতে নেমে তিনটি চার মেরে ৯২ রান তুলে টানা তৃতীয় সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিলেন ইনজুরি আক্রান্ত স্মিথ। কারণ বার্মিংহামে সিরিজের প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসেই ১৪৪ ও ১৪২ রান করেন স্মিথ। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে দুর্ভাগ্যজনকভাবে ৯২ রানেই থেমে যেতে হয় স্মিথকে।

স্মিথের শারীরিক অবস্থার কথা চিন্তা করে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে তাকে খেলায়নি অস্ট্রেলিয়ার টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই অটোমেটিক চয়েজ হিসেবে লিডস টেস্টে একাদশে খেলার সুযোগ পান লাবুশেন। দুই ইনিংসে ৭৪ ও ৮০ রান করে রীতিমতো নিজেকে প্রমাণ করেন তিনি। অ্যাশেজে তিন ইনিংস ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে ৭১ গড়ে ২১৩ রান করে একাদশে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করে রাখেন লাবুশানে।

তাই স্মিথের ফিরে আসা ও লাবুশেনের দুর্দান্ত ফর্মে এখন বড় চিন্তার ভাঁজ অস্ট্রেলিয়ার কপালে। তবে স্মিথ-লাবুশানেকে একাদশে রাখতে একটা সমাধানের চেষ্টায় অস্ট্রেলিয়া আছে বলে জানান হন্স। গেল তিন ম্যাচে রানের জন্য ধকেছে অস্ট্রেলিয়ার টপ-অর্ডার। প্রথম দুই ম্যাচে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন ক্যামেরন বেনক্রফট। ৪ ইনিংসে ৪৪ রান করেন। ফলে তৃতীয় টেস্টে বাদ পড়েন তিনি। তার পরিবর্তে তৃতীয় ম্যাচে সুযোগ পান মার্কাস হ্যারিস। দুই ইনিংসে করেন ৮ ও ১০ রান। ফলে তিনিও ব্যর্থ।

এছাড়া রানের ক্ষুধায় আছেন ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারও। ৬ ইনিংসে করেছেন ৭৯ রান। তবে ওয়ার্নারকে বাদ দেয়ার কোন সম্ভাবনাই নেই। কারণ যেকোন সময়ই বড় ইনিংস খেলে ফেলার ক্ষমতা আছে ওয়ার্নারের। তবে কে হবেন ওয়ার্নারের সঙ্গী? সেক্ষেত্রে ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ওপেনার হিসেবে খেলেছেন চলমান সিরিজে তিন নম্বরে খেলা উসমান খাজা। করেছেন ৭২ রান। তাই খাজাকে ইনিংসের শুরুতেই ওয়ার্নারের সঙ্গী করে তিন নম্বরে লাবুশেনেকে খেলার পরিকল্পনা করতে পারে অস্ট্রেলিয়া। আগের তিন টেস্টে তিন নম্বরে খেলেছিলেন খাজা। সুবিধা করতে পারেননি। ৬ ইনিংসে ১২২ রান করেন তিনি।

তবে ওপেনার হিসেবে খাজার রান পেলেও তাকেই ইনিংসের শুরুতে পাঠাতে রাজি নন হন্স। তিনি বলেন, 'ওপেনার হিসেবে খাজার খেলার কোনো সুযোগ নেই। আমরা জানি, সে ওপেনার হিসেবে খেলতে পারে। অতীতে সে এমনটি করেছে। তবে আমরা এটিও জানি, তিন নম্বরে খাজা দারুন ব্যাট করে থাকে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা