kalerkantho

আবারও ভারতের কোচ হতে চাইলেন গাঙ্গুলী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৬:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবারও ভারতের কোচ হতে চাইলেন গাঙ্গুলী

বিশ্বকাপের পর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) যখন কোচ অনুসন্ধান করছিল, তখন এক সাক্ষাতকারে সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী ভবিষ্যতে কোচ হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছিলেন। এরপর গতকাল সাবেক ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ ভারতের প্রধান নির্বাচক হিসেবে অনিল কুম্বলেকে নিয়োদ দেওয়ার দাবি জানান। এবার শেবাগের প্রস্তাবের সমর্থন দেওয়ার পাশাপাশি আবারও বিরাট কোহলিদের কোচ হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন সৌরভ। যদিও ইতিমধ্যেই দুই বছরের চুক্তিতে পুনঃনিয়োগ পেয়েছেন রবি শাস্ত্রী।

শেবাগের পাশে দাঁড়িয়ে ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা ম্যাচ উইনার প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, 'অনিল কুম্বলে নিঃসন্দেহে যোগ্য প্রার্থী। কুম্বলে যদি ভারতের প্রধান নির্বাচক হয়, তাহলে এর থেকে ভালো আর কী হতে পারে! দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে আরও বেশি সততা, অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ হবে ভারতীয় ক্রিকেট। শেবাগেরও ভালো নির্বাচক হওয়ার গুণ রয়েছে। ও খুব সাহসী। সেই সঙ্গে বড় ম্যাচ সম্পর্কে দৃষ্টিভঙ্গি পরিষ্কার। অতীতে বহু ম্যাচ জিতিয়েছে বীরু। সুতরাং বীরু দায়িত্ব পেলে ভাল কাজই করবে। অনিল কুম্বলে ও বীরেন্দ্র শেবাগের ভাল নির্বাচক হওয়ার গুণ রয়েছে।'

দিন কয়েক আগেই সৌরভ বলেছিলেন, তিনি ভবিষ্যতে ভারতের কোচ হতে আগ্রহী। তখন দেশে বিদেশের বিভিন্ন প্রার্থী ভারতের হেড কোচের চেয়ারে বসার জন্য আবেদন করেছিলেন। সেই সময়ে সৌরভ জানিয়েছিলেন, তিনিও ভবিষ্যতে বিরাট কোহালিদের কোচ হিসেবে কাজ করতে চান। ভারতের একটি শীর্ষ সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সৌরভ আরও একবার কোচ হওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করে বলেন, 'ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে কাজ করতে চাই, তা আগেই বলেছিলাম। বিরাট কোহালি ম্যাচ উইনার, চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটার। কোহালির সঙ্গে কাজ করতে আমার ভালোই লাগবে।'

সৌরভের নেতৃত্বে ভারতীয় দল বদলে গিয়েছিল। বিদেশের মাটিতেও যে ভারত জিততে পারে, সেই বিশ্বাসের জন্ম হয়েছিল সৌরভের নেতৃত্বেই। জাতীয় দলের কোচ হলে ভারতের সাবেক অধিনায়ক সেই বিশ্বাসের জন্ম দিতে পারবেন কোহালিদের সাজঘরে, এমনটাই বিশ্বাস ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের। সৌরভ বলেন, 'বড় টুর্নামেন্টে দলকে জেতানোর অবদান রাখতে পারলে ভালই লাগবে।' সৌরভ কোচ হলে, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে গিয়ে জেতা অভ্যাসে পরিণত করাতে পারবেন বলেই মনে করছে দেশটির ক্রিকেটাঙ্গন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা