kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

উনি আমার পেছনে সজোরে লাথি মেরেছেন : জন্টি রোডস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উনি আমার পেছনে সজোরে লাথি মেরেছেন : জন্টি রোডস

ক্রিকেট বিশ্বে প্রথমবার ফিল্ডিংকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। ব্যাটিং-বোলিংয়ের বাইরে একজন ফিল্ডার হিসেবেও যে বিখ্যাত হওয়া যায়- তা প্রথম দেখিয়েছন জন্টি রোডস। সাবেক এই প্রোটিয়া ক্রিকেটার এখনও ফিল্ডিংয়ের জন্য বিখ্যাত। অথচ ভারতীয় দলের পরবর্তী ফিল্ডিং কোচের পদে আবেদন করলেও এমএসকে প্রসাদের নেতৃত্বাধীন নির্বাচক কমিটি তাকে পাত্তাই দেয়নি! জন্টি নাকি আগে থেকেই জানতেন, ভারতীয় দলে চাকরি হচ্ছে না তার। 

ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচের পদে আর শ্রীধরের পুনর্বহাল প্রসঙ্গে জন্টি বলেন, 'আমার ইন্টারভিউ মোটেই আহামরি হয়নি। তাই আমি নিশ্চিত ছিলাম দায়িত্বে থাকা কোচের সঙ্গে পেরে উঠব না। কারণ বিগত দুই বছর ধরে তিনি এই দলের সঙ্গে যুক্ত। সহজে কোনো বিষয়ে উন্নতি সম্ভব নয়। এখানে দলের ক্রিকেটাররা নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে। আমি ইন্টারভিউয়ের দৃষ্টিকোণ থেকে সবকিছু বোঝার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু উনি আমার পশ্চাৎদেশে সজোরে পদাঘাত করেছেন।'

ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচের পদে তার আবেদনের কারণ সম্পর্কে জন্টি বলেন, '২০০৭ বিশ্বকাপ পর্যন্ত টানা দুই বছর দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় দলের কোচ হিসেবে নিযুক্ত ছিলাম আমি। তারপর থেকে আমি শুধু ভারতের মাটিতেই কাজ করেছি। দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে ভারতের ক্রিকেটীয় পরিকাঠামোর সঙ্গে আমি অনেক বেশি অভ্যস্ত।'

উল্লেখ্য, ব্যাটিং কোচ ও বোলিং কোচের পাশাপাশি গতকাল বৃহস্পতিবার ফিল্ডিং কোচের পদেও চূড়ান্ত বাছাইতালিকা প্রকাশ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পাঁচ সদস্যের নির্বাচক কমিটি। নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান এমএসকে প্রসাদ বলেন, 'শ্রীধর অন্যতম সেরা একজন ফিল্ডিং কোচ। দুর্ভাগ্যবশত স্কোয়াডে তিনজন উইকেটকিপার থাকায় বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের ফিল্ডিং সেভাবে ডানা মেলতে পারেনি। কিন্তু ফিল্ডিং ইউনিট হিসেবে ভারতীয় দল দুর্ধর্ষ হয়েছে শ্রীধরের হাত ধরেই। তাই শ্রীধরের বিকল্প ভাবনার কোনো অবকাশ নেই।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা