kalerkantho

ড্রেসিংরুমে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিলেন স্মিথ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ১৫:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ড্রেসিংরুমে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিলেন স্মিথ!

আঘাত পাওয়ার সেই মুহূর্ত। ছবি : এএফপি

অ্যাশেজে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিলেন ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার। গত শনিবার তার বাউন্সার আছড়ে পড়ে স্টিভ স্মিথের ঘাড়ে। আঘাত পাওয়ার পরেই মাঠে শুয়ে পড়েন স্মিথ। সাবেক অজি অধিনায়ককে তখনই ড্রেসিংরুমে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ৪৫ মিনিট বিশ্রাম নেওয়ার পরে ক্রিজে এসে আরও ১২ রান যোগ করে ৯২ রানে আউট হন স্মিথ। কিন্তু সাবলীল ব্যাটিং করতে অসুবিধা হচ্ছিল তার।

অজি বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সারারাত পর্যবেক্ষণের মধ্যে রাখা হয় স্মিথকে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের মেডিক্যাল টিম বিবৃতিতে বলে, 'আমাদের প্রতিনিধিরা সারারাত ওর উপরে নজর রেখেছে। স্মিথের ঘুম বেশ ভালোই হয়েছে। কিন্তু সকালের দিকে খুব একটা স্বাভাবিক ছিল না। হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে গিয়েছি! ওর ঝিমুনি ভাব এখনও রয়েছে।'

রবিবার তাই ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মদুগলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম 'কংকাশান সাব' ব্যবহার করার অনুমতি প্রদান করেন। দ্বিতীয় টেস্টে স্মিথের আর খেলা হয়নি। মার্নাস লাবুশানে ইতিহাসের প্রথম বদলি ক্রিকেটার হিসেবে খেলতে নামেন। কিন্তু তিনিও আর্চারের বাউন্সার থেকে রেহাই পাননি। অ্যাশেজের প্রথম রান করার আগেই তাকে বাউন্সারে স্বাগত জানান আর্চার। হেলমেটে আছড়ে পড়ে সেই বাউন্সার। যদিও তাতে বড় কোনো সমস্যা হয়নি।

ঘাড়ে অথবা মাথায় আঘাত পাওয়ার পরে সেই ক্রিকেটারকে দীর্ঘক্ষণ পর্যবেক্ষণে রাখার নির্দেশ রয়েছে আইসিসির। স্মিথের ক্ষেত্রে যে সমস্যা দেখা গেছে তা ৩০ শতাংশ ক্রিকেটারদের মধ্যে লক্ষ্য করা যায়। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'চোট পাওয়ার দিন স্মিথের মধ্যে সমস্যা দেখা যায়নি। কিন্তু চোট পাওয়ার ২০ ঘণ্টা পরে লক্ষ্য করা যায় ও দুর্বল হয়ে পড়ছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এ ধরনের সমস্যা আগেও দেখা যেত।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা