kalerkantho

আর্চার মোটেও ক্রিকেটীয় আচরণ করেনি : শোয়েব আখতার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ আগস্ট, ২০১৯ ২১:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আর্চার মোটেও ক্রিকেটীয় আচরণ করেনি : শোয়েব আখতার

বিশ্ব ক্রিকেট ইতিহাসের ভয়ংকর পেস বোলারদের একজন ছিলেন শোয়েব আখতার। পাকিস্তানের সাবেক এই স্পিডস্টারের সামনে বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের হাঁটু কাঁপত। মাঠে ছিলেন আগ্রাসী। কিন্তু শোয়েবের ভেতর থেকে কখনই স্পোর্টসম্যানশিপ হারিয়ে যায়নি। গতকাল শনিবার লর্ডস টেস্টে জোফরা আর্চারের মারাত্মক বাউন্সার আছড়ে পড়ে স্টিভ স্মিথের ঘাড়ে। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। স্মিথকে মাটিতে শুয়ে পড়তে দেখেও এগিয়ে আসেননি আর্চার। সান্ত্বনা দেওয়ার বদলে হাসছিলেন তিনি!

ইংল্যান্ডের ফাস্ট বোলারের এমন আচরণ দেখে রীতিমতো অবাক 'রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস'। নিজের অফিসিয়াল টুইটারে তিনি লিখেছেন, 'বাউন্সার ক্রিকেটের অংশ। কিন্তু কোনো বোলারের ডেলিভারিতে ব্যাটসম্যান যখনই আহত হন, তখন সৌজন্যবশত বোলারের উচিত ব্যাটসম্যানের পাশে গিয়ে দাঁড়ানো। স্মিথ আহত হওয়ার পরে আর্চার ব্যাটসম্যানের কাছে না গিয়ে দূরে সরে যায়। ওর এমন আচরণ আমার কাছে মোটেও ক্রিকেটীয় মনে হয়নি। আমি এরকম পরিস্থিতিতে সব সময়ে ব্যাটসম্যানের কাছে আগে দৌঁড়ে যেতাম।'

আর্চারের বাউন্সারের আঘাতে অ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম দিনে ছিটকে যান স্মিথ। রবিবার তার চোট পরীক্ষা করা হয়। সেই রিপোর্টে দেখা যায় কনকাশন হয়েছে স্মিথের। এই রিপোর্ট পাওয়ার পরেই আইসিসির কাছে অস্ট্রেলিয়া আবেদন করে, স্মিথের পরিবর্ত হিসেবে পঞ্চম দিনে অন্তর্ভুক্ত করা হোক মারনাস ল্যাবুশেনকে। আইসিসিও সম্মতি দেয়। যে কারণে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম বদলি ক্রিকেটার হয়ে যান ল্যাবুশন। তিনি ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং- সবই করতে পারবেন। কিন্তু, তৃতীয় টেস্টে স্মিথ খেলতে পারবেন কি না, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা