kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

আইসিসিকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার অনুরোধ ক্রিকেটারদের আন্তর্জাতিক সংস্থার

বিনা বেতনে মাসের পর মাস খেলছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটাররা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জুলাই, ২০১৯ ১৫:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিনা বেতনে মাসের পর মাস খেলছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটাররা!

বাংলাদেশের ক্রিকেটের অকৃত্রিম বন্ধু দেশ জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাঙ্গনে এখন ভীষণ দুর্দিন চলছে। তাদের ক্রিকেট বোর্ড ভেঙে দেওয়া হয়েছে। আইসিসি জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিত করেছে। এবার নতুন খবর হলো আগামী সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের মাটিতে বিসিবি যে ত্রিদেশীয় সিরিজের আয়োজন করতে যাচ্ছিল, তাতে যোগ দিচ্ছে না জিম্বাবুয়ে। শুধু আইসিসির নিষেধাজ্ঞাই নয়; দেশটির ক্রিকেটাররা ঠিকমতো বেতনও পান না!

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের একজন মুখপাত্র ক্রিকবাজকে বলেছেন, 'বোর্ডের কর্মকর্তাদের মতনৈক্যের প্রভাব পড়েছে পুরো দলটির ওপর। এমনকী বিনা বেতনে ক্রিকেটারদের মাসের পর মাস খেলে যাওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে। যত দ্রুত সম্ভব আমরা আমাদের দলকে আবারও মাঠে দেখতে চাই। এজন্য আইসিসি এবং স্টেকহোল্ডারদের যতটা সহযোগিতা করা দরকার তা করা হবে। আমি আশাবাদী, খুব দ্রুতই আইসিসি সদস্যপদের ওপর থেকে স্থগিতাদেশ তুলে নেবে।'

ক্রিকেটবিশ্বে একসময় উঠতি শক্তি হিসেবে পরিচিত ছিল জিম্বাবুয়ে। কিন্তু এক পর্যায়ে বর্ণবাদ আর রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের কারণে ধীরে ধীরে পিছিয়ে পড়ে তারা। একইসঙ্গে তাদের বোর্ডে ভয়াবহ দুর্নীতি শুরু হয়। যে কারণে ক্রিকেটাররা বেতন পর্যন্ত পাচ্ছিলেন না! ম্যাচ ফি তো বহু দূরের কথা। স্রেফ ভালোবাসার কারণেই বেশিরভাগ ক্রিকেটার খেলে যাচ্ছিলেন এতদিন। কিন্তু এবার সেটাও বন্ধ হয়ে গেল। আইসিসি তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা না করা পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কিংবা আইসিসির এফটিপির আওতায় থাকা কোনো সূচিতেও অংশ নেবে না।

ইতিমধ্যেই জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিত করা নিয়ে ক্রিকেটবিশ্বে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। দরিদ্র দেশটিকে সহযোগিতা না করে কেন এমন পদক্ষেপ নেওয়া হলো- এমন প্রশ্ন তুলছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। আগামী মঙ্গলবার আইসিসির বার্ষিক সভায় জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিতের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা হবে।

ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (ফিকা) এক বিবৃতিতে বলেছে, 'জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা নানা কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে এসেছে। তারা বোর্ড সম্পর্কিত নানা সমস্যার মধ্য দিয়ে অতীতেও গিয়েছে, এখনও যাচ্ছে। ক্রিকেটাররা মাসের পর মাস কোনো বেতন পায়নি; ম্যাচ ফি পায়নি। তাদের সঙ্গে বার বার চুক্তি ভঙ্গ করা হয়েছে। আমরা আইসিসির কাছে দাবি জানাচ্ছি, এমন কিছু করতে যাতে নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও ক্রিকেটারদের চুক্তিকে সম্মান জানানো হয়।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা