kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসছে না জিম্বাবুয়ে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জুলাই, ২০১৯ ১২:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসছে না জিম্বাবুয়ে

আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে সেপ্টেম্বরে আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসছে না জিম্বাবুয়ে। গতকাল শনিবার জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই জানানো হয়েছে।

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট তাদের বার্তায় লিখেছে, ‘আইসিসি জিম্বাবুয়েকে একটি বৈশ্বিক বাছাইপর্বের আয়োজক হওয়ার সুযোগ দিয়েছিল। কিন্তু এখন সবকিছু পেন্ডুলামে দুলছে। সবকিছু মিলিয়ে খেলোয়াড় ও স্টাফরা বিরোধ নিষ্পত্তির আগুনে পুড়ছে। যেটা চলতে পারে কয়েক মাস। এমনকী বহুদিন। যেখানে তারা কোনো বেতন পাবে না। পাবে না কোনো ম্যাচ ফি।’

অবশ্য ত্রিদেশীয় সিরিজে জিম্বাবুয়ের অংশ নেওয়ার বিষয়টি তাদের ওপরই ছেড়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এ বিষয়ে বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, যদি জিম্বাবুয়ে অংশগ্রহণ না করে তবে ত্রিদেশীয় সিরিজটি দ্বিপাক্ষীয় সিরিজে পরিণত হবে। যেখানে থাকবে দুটি দল-বাংলাদেশ আর আফগানিস্তান।

সম্প্রতি লন্ডনে আইসিসির বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ সর্বসম্মতিতে স্থগিত করা হয়। পরে এ বিষয়ে আইসিসির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ক্রিকেটে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ ঠেকাতে ব্যর্থতার জন্য শাস্তি হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে আইসিসিকে এ বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার দাবি জানিয়েছে ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (ফিকা)। সংস্থাটি জানিয়েছে , ‘জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা নানা কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে এসেছে। তারা বোর্ড সম্পর্কিত নানা সমস্যার মধ্য দিয়ে অতীতেও গিয়েছে, এখনও যাচ্ছে। তারা মাসের পর মাস কোনো বেতন পায়নি। ম্যাচ ফি পায়নি। তাদের সঙ্গে করা চুক্তি বার বার ভঙ্গ হয়েছে। আমরা আইসিসির কাছে দাবি জানাচ্ছি, এমন কিছু করতে যাতে নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও ক্রিকেটারদের চুক্তিকে সম্মান জানানো হয়।’

ফিকা আরো জানায়, ‘জিম্বাবুয়ের কিছু কিছু ঘরোয়া ক্রিকেটার মানবেতর জীবনযাপন করছে। তারা দিন এনে দিন খেয়ে বেঁচে আছে। যা খুবই মানবেতর পরিস্থিতি। এই নিষেধাজ্ঞা সেই পরিস্থিতিকে আরো কঠিন করে তুলবে। তাই আমরা বিশ্বাস করি উদ্ভুত পরিস্থিতিতি তুলে ধরা উচিত এবং বিষয়গুলো বিবেচনা করে আইসিসির পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা