kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

কলেজের পড়া ফেলে তিনি আজ ভয়ংকর ওপেনার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুলাই, ২০১৯ ১৮:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলেজের পড়া ফেলে তিনি আজ ভয়ংকর ওপেনার

স্ত্রী-কন্যাসহ সপরিবারে বিশ্বকাপ জয় উদযাপন করছেন জেসন রয়। ফাইল ছবি

আর দশটা শিক্ষার্থীর মতোই শিক্ষাজীবন শুরু হয়েছিল তার। ইচ্ছা ছিল, কলেজে স্পোর্টস সায়েন্স নিয়ে পড়বেন। প্রবেশিকা পরীক্ষাতেও পাশ করে যান। কিন্তু তখন মাথায় ভর করেছে ক্রিকেটের ভুত। তাই সেই কোর্স সম্পূর্ণ না করে নেমে পড়েন খেলার মাঠে। স্টোর্পস সায়েন্সের বদলে তার জীবনের মূল ফোকাসই হয়ে যায় ক্রিকেট। তিনি জেসন রয়; ভয়ংকর ইংলিশ ওপেনার। চলুন জেনে নেওয়া যাক তার জীবনকাহিনী।

জেসন জন্মগত ভাবে ব্রিটিশ নন। তার জন্ম দক্ষিণ আফ্রিকায়। পরে তার পরিবার ইংল্যান্ডে চলে আসে। তখন জেসনের বয়স মাত্র ১০। বর্তমানে বিশ্ব ক্রিকেটে বিস্ফোরক ক্রিকেটারদের মধ্যে অন্যতম জেসন রয়। ওয়ানডেতে তিনি দলের সেরা ওপেনার। জেসনের ক্যারিয়ার শুরু কাউন্টি ক্রিকেট দিয়ে। তিনি সারের হয়ে খেলতেন। ধীরে ধীরে তিনিই হয়ে ওঠেন দলের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের মূল স্তম্ভ।

তার নামের পাশে একটা এমন রেকর্ডও আছে, যা তিনি কেন, কোনও ক্রিকেটারই হয়তো চাইবেন না। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিনিই প্রথম ব্যাটসম্যান যিনি অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ড এর জন্য আউট হয়েছিলেন। খেলার পাশাপাশি ফ্যামিলি লাইফও দিব্যি ব্যালান্স করেন জেসন। ২০১৭ সালে বিয়ে করেন তার দীর্ঘ দিনের বান্ধবী এল মুর উইন্টারকে। এলও দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়ে। ফ্রান্সে বিয়ের পর তারা পাড়ি দেন লম্বা মধুচন্দ্রিমায়। সফল পুরুষের পিছনে যদি একজন নারীর অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়, তবে জেসন রয়ের চালিকাশক্তি অবশ্যই সুন্দরী এল।

এ বছরই মার্চ মাসে তাদের সংসারে নতুন অতিথি এসেছে। জন্ম হয়েছে তাদের প্রথম সন্তানের। মেয়ের নাম রেখেছেন এভার্লিউসদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপে জেসন দুরন্ত ফর্মে ছিলেন। আবার চোট আঘাতও বেশ ভুগিয়েছে তাকে। খেলতে পারেননি সব ম্যাচে। ক্রিকেটের পাশাপাশি জেসন ভালবাসেন টেনিস দেখতে। সেখানেও তার সঙ্গী স্ত্রী। দুজনে ছবি পোস্ট করেন টেনিসের গ্যালারি থেকেও। পরিবার যদি জীবনে সাফল্যের বড় স্তম্ভ হয়, তবে জেসন সে দিক দিয়ে সৌভাগ্যবান। স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে সুখী পরিবার তাকে মানসিক শক্তি দেয় বাইশ গজে ঝড় তোলার জন্য।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা