kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

আইসিসির নিয়ম ভেঙে ইংল্যান্ডকে অতিরিক্ত ১ রান দেয়ার অভিযোগ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জুলাই, ২০১৯ ১৪:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আইসিসির নিয়ম ভেঙে ইংল্যান্ডকে অতিরিক্ত ১ রান দেয়ার অভিযোগ!

ক্রিকেট বিশ্বের সুদীর্ঘ ইতিহাসে যে ঘটনা ঘটেনি, তা-ই ঘটল লর্ডসে। বিশ্বকাপের ফাইনালে পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা ম্যাচে নিঃশ্বাসের উত্থান পতন সাক্ষী হয়ে থাকল লর্ডস। শ্বাসরূদ্ধকর ফাইনালে লর্ডসে বিজয়ী হয়েই মাঠ ছাড়ল ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। তবে চ্যাম্পিয়ন হয়েও রয়ে গেল একটি প্রশ্ন।

আইসিসি-র অদ্ভূত নিয়মে বাউন্ডারি মারার সংখ্যা চ্যাম্পিয়নশিপের বিচার্য হলেও অবিচার হলো নিউজিল্যান্ডের প্রতি! এমনটাই বলছেন ক্রিকেট বিশ্বের অনেকেই।

অনেকেরই বিষয়টি চোখ এড়িয়ে গেছে। ওই বিষয়টি ধরলে একটি রান কম পেত ইংল্যান্ড। ফলে নির্ধারিত ৫০ ওভারেই খেলার নিষ্পত্তি হয়ে যেত। সুপার ওভারের প্রয়োজনই পড়ত না। সেক্ষেত্রে চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে নাম লেখা থাকত নিউজিল্যান্ডের নাম- এমনটাই বলছেন অনেক সমালোচক।

খেলার শেষ ওভারে ট্রেন্ট বোল্টের হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন ক্যাপ্টেন। সেই ওভারে ব্যাট করছিলেন ক্রিজে টিকে যাওয়া বেন স্টোকস। তবে কিউয়িদের দুর্ভাগ্য সঙ্গী চতুর্থ বলে। ডিপ মিড উইকেট থেকে ছোঁড়া বল রান নিতে থাকা স্টোকসের গায়ে লেগে বিক্ষিপ্ত হয়ে থার্ড ম্যান বাউন্ডারিতে আছড়ে পড়ে।

সেই বলেই দৌড়ে দু-রান পূর্ণ করে নিয়েছিলেন স্টোকস এবং আদিল রশিদ। অতিরিক্ত আরও চার রান যোগ হয়ে যায় ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ডে। অনফিল্ড আম্পায়ার মরিস ইরাসমাস এবং বাকি প্যানেলভুক্ত আম্পায়ারদের সঙ্গে আলোচনার পরে কুমার ধর্মসেনা ৬ রানের ইঙ্গিত দেন। অর্থাৎ শেষ ওভারের চতুর্থ বলে মোট ৬ রান যুক্ত হয়। এখানেই আম্পায়াররা আইসিসির নিয়ম ভেঙে ইংল্যান্ডকে অতিরিক্ত ১ রান দিয়েছে, এমনটাই অভিযোগ উঠেছে।

সমালোচকরা বলছেন, আইসিসির নিয়মে রয়েছে ওভার থ্রোয়ে যদি চার হয়, তবে তার আগে সেই রানই যোগ হবে, যে রান ব্যাটসম্যানরা ফিল্ডার বল ছোড়ার আগে শেষ করেছেন। অর্থাৎ গাপ্তিল বল ছোড়ার আগে যে রানটি স্টোকস ও রশিদ নিয়েছেন, সেই রানই যোগ হবে। প্রথম রান তাঁরা শেষ করলেও দ্বিতীয় রান তাঁরা নেওয়া শুরু করলেও ক্রস করেননি। তাই পরের সেই রানটি যোগ হওয়ার কথা নয়।

মার্টিন গাপ্টিল যখন বাউন্ডারি থেকে বল থ্রো করছিলেন, সেই সময় বেন স্টোকস-রশিদ কেবলমাত্র একটা রানই নিতে সক্ষম হয়েছিলেন। দ্বিতীয় রান তখনও সম্পন্ন করেননি। সেই হিসেবে বাউন্ডারির সঙ্গে অতিরিক্ত এক রানই যুক্ত হতে পারত। কিন্তু নিয়ম লঙ্ঘণ করেই এক রান অতিরিক্ত দেওয়া হয়েছে, এই অভিযোগই উঠেছে এখন।

সূত্র : আনন্দবাজার ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা