kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

ভারত ম্যাচের আগে মাহমুদউল্লাহর চোট নিয়ে শঙ্কা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ জুন, ২০১৯ ১৪:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারত ম্যাচের আগে মাহমুদউল্লাহর চোট নিয়ে শঙ্কা

চলতি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের খেলায় মুগ্ধ গোটা বিশ্ব। ক্রিকেটারদের মধ্যেও আছে নিজেদের মতো করে খেলতে পারার সুর। দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতে প্রতিপক্ষের বল মোকাবেলায় কঠিনভাবে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন যে কেউ। আবার বোলিংয়েও প্রায় সবাই উইকেট পাচ্ছেন। দলের প্রয়োজনে ব্রেক থ্রু এনে দিয়ে রাখছেন অধিনায়কের আস্থা। সেই তালিকায় মোসাদ্দেক হোসেন যেমনি আছেন, তেমনি আছেন বাংলাদেশর দলের ওপেনিং ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকারও। তাই বিশ্বকাপ দলে থাকা দলের সব খেলোয়াড়ই টাইগারদের সেমিফাইনালের স্বপ্ন পূরণের বড় কাণ্ডারি। সব ম্যাচেই উজ্জ্বল ছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তার একক লড়াই হয়তো কাজেই আসতো না। যদি দলের অন্য খেলোয়াড়রা সাপোর্ট দিয়ে না যেতেন। এই সাপোর্ট তামিম, লিটন, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহরা সর্বোচ্চ দিয়ে গেছেন। আর দিয়ে গেছেন বলেই এখনো টাইগাররা সেমিফাইনালের স্বপ্ন দেখেন। 

কিন্তু ভারত ম্যাচের আগে কিছুটা চিন্তার ভাঁজ টাইগারদের কপালে। কারণ ভারতের সাথে জিততেই হবে। এমনই এক ম্যাচের আগে চোটে পড়েছেন মাহমুদউল্লাহ। তবে কিছুটা চিন্তামুক্ত হওয়া যায় বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পরের ম্যাচের আগে লম্বা বিরতির কারণে। তারপরও! শঙ্কায় থাকতে হবে চোটে পড়া মাহমুদউল্লাহকে পাওয়া নিয়ে। ডান পায়ের কাফ মাসলের চোটে এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিনের বিশ্রামে থাকতে হতে পারে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারকে।

গতকাল সোমবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে উইকেটে যাওয়ার একটু পরই খোঁড়াতে শুরু করেন মাহমুদউল্লাহ। ফিজিও এসে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে যান। তখনই চোখে পড়ে তার ডান পায়ে টেপ পেঁচানো। কিছু সময় পর আবার খোঁড়াতে শুরু করলে ফিজিওকে মাঠে আসতে হয় আরেকবার। তাতেও অবস্থার উন্নতি হয়নি। মাহমুদউল্লাহও উইকেট ছেড়ে যাননি। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়েই সঙ্গ দিয়ে গেছেন মুশফিকুর রহিমকে। দৌড়ে দুই, এমনকি তিন রানও নিয়েছেন। গড়ে তুলেছেন গুরুত্বপূর্ণ জুটি। পরে তাকে আর ফিল্ডিংয়ে নামতে দেখা যায়নি। ম্যাচের পর পরই স্ক্যান করানো হয় মাহমুদউল্লাহর।

মাহমুদউল্লার চোট নিয়ে দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ বলেন, স্ক্যানে ওর গ্রেড ওয়ান টিয়ার ধরা পড়েছে। এছাড়া আর কিছু বলার উপায় আপাতত নেই। আগামীকাল বুধাবার ফিজিওর সঙ্গে কথা বলে হয়তো বিস্তারিত কিছু জানা যাবে। তবে দলীয় সূত্র বলছে, মাহমুদউল্লাহর আত্মবিশ্বাস ভারতের বিপক্ষে তিনি মাঠে নামতে পারবেন। ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ আগামী ২ জুলাই বার্মিংহামে। সময় আছে এক সপ্তাহ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা