kalerkantho

শনিবার । ২০ জুলাই ২০১৯। ৫ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৬ জিলকদ ১৪৪০

সাবেক উয়েফা প্রেসিডেন্ট মিশেল প্লাতিনি গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জুন, ২০১৯ ২১:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাবেক উয়েফা প্রেসিডেন্ট মিশেল প্লাতিনি গ্রেপ্তার

২০২২ সালে ফুটবল বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে কাতারে। সেখানে চলছে নতুন স্টেডিয়াম ও নানারকম অবকাঠামো নির্মাণের বিরতিহীন কাজ। এই বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দেশ ৩২ থেকে ৪৮ করার জন্য ফিফাকে সুপারিশও করা হয় দেশটির পক্ষ থেকে। যত যাই হোক প্রতি চার বছর পর পর হওয়া সামনের বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে মরুভূমির দেশ কাতারে।

তবে কাতারকে টাকার বিনিময়ে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজন করার সুযোগ করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে সাবেক উয়েফা প্রেসিডেন্ট ও ইউরোপিয়ান ফটবলের কর্তা মিশেল প্লাতিনির বিরুদ্ধে। এবার এই ফুটবল কর্তাকে গ্রেপ্তার করা হলো।

মঙ্গলবার সকালে কাতার বিশ্বকাপ দুর্নীতি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য ফরাসি ফুটবল কিংবদন্তি প্লাতিনিকে প্যারিসের নতেঁরেসে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়। এমনটাই রিপোর্ট ফরাসি অনলাইন তদন্তকারী জার্নাল মিডিয়াপার্টের।

২০০৭ সাল থেকে ২০১৫ অবধি উয়েফা প্রেসিডেন্ট ছিলেন প্লাতিনি। কিন্তু আর্থিক অনিয়মে দোষী প্রমাণিত হয়ে উয়েফা থেকে নির্বাসিত হন তিনি। জানা যায়, সাবেক ফিফা প্রেসিডেন্ট সেপ ব্লাটারের ডান হাত ছিলেন প্লাতিনি। ফলে উয়েফা প্রেসিডেন্টের পাশাপাশি ফিফার টেকনিক্যাল অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব সামলান তিনি। কিন্তু দুর্নীতিতে ডুবে থাকা ব্লাটার ও প্লাতিনিকে চার বছরের জন্য ফুটবলের যাবতীয় কার্যকলাপ থেকে নির্বাসিত করা হয়।

২০১০ সালে মরুর দেশ কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব দেয় ফিফা। আর এরপর থেকেই এ নিয়ে নানা বিতর্ক তৈরি হয়। ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ, কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব তুলে দেওয়ার সময় বড় কোনো দুর্নীতি হয়েছিল।

ফিফার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জ্যাক ওয়ার্নার তখন দাবি করেছিলেন যে, বিশাল অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে দেওয়া হয়েছিল। ২০১৪ সালে কাতারের নাম চূড়ান্ত ঘোষণা করার আগে প্লাতিনি গোপনে বৈঠক করেছিলেন কাতারের ফুটবল প্রশাসক ও এএফসির প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ বিন হাম্মামের সঙ্গে। সেই কথা স্বীকারও করেন প্লাতিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা