kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ জুলাই ২০১৯। ৪ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৫ জিলকদ ১৪৪০

এখানেই থামছেন না সাকিব...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জুন, ২০১৯ ১৩:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এখানেই থামছেন না সাকিব...

এবারের বিশ্বকাপে মুগ্ধতা ছড়িয়েই যাচ্ছেন বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যেন পণ করে নেমেছেন কিছু একটা প্রমাণের। ব্যাট হাতে এখন পর্যন্ত ৪ ইনিংসে দুই সেঞ্চুরি ও দুই ফিফটিতে ৩৮৪ রান, বল হাতে পাঁচ উইকেট। সাথে অসাধারণ ফিল্ডিং ও দরকারের সময় তরুণ ক্রিকেটারদের সাথে শলাপরামর্শ করতে দেখা যাচ্ছে সাকিবকে। তবে সাকিব জানালেন এখানেই থামছেন না তিনি, আরো কিছু প্রমাণের বাকি আছে তার।    

আগে অংশ নেওয়া তিন বিশ্বকাপে ছিল না কোনো ম্যাচ সেরার পুরস্কার, ছিল না কোনো শতক। এবার যেন সব নিজের করে নিতে মরিয়া তিনি। ইতোমধ্যে চার ম্যাচের দুটিতে ম্যাচ সেরা, হাঁকিয়েছেন দু-দুটি শতক। বিশ্বকাপের আগে ভারতে বসে নিজের ফিটনেস ও খেলা নিয়ে আলাদাভাবে কাজ করার ঘটনা সবার জানা। 
সাকিব পণ করেই রেখেছিলেন এবার দেখিয়ে দেবেন। সাকিবকে ধরা হয় আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার, পরিসংখ্যান রেকর্ড সবই তার পক্ষেই কথা বলছে। এবার সেই আধুনিক ক্রিকেট থেকে বেরিয়ে সর্বকালের সেরাদের তালিকায় ঢোকার লড়াই সাকিবের। আর তিনি চাইলেই যে পারেন তা অন্তত বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকদের অজানা নয়। 

চার ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি, দুই হাফ সেঞ্চুরিসহ ৩৮৪ রান। বল হাতে পাঁচ উইকেট। যেকোন খেলোয়াড়ের জন্য এটা প্রশংসনীয় রেকর্ড। তবে সাকিব এখনই তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলতে নারাজ। তার বিশ্বাস সামনের ম্যাচগুলোতে ফোকাস রেখে এগোতে পারলে আরো ভালো কিছু অপেক্ষা করছে তার জন্য। 

গতকাল ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব জানান, আমি এবার ভালো কিছু একটা করতে মুখিয়ে ছিলাম। দারুণ আত্ববিশ্বাসী ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলাম আমি। দলের জন্য কন্ট্রিবিউট করতে সবাই চায়, আমিও ব্যতিক্রম না। তবে ভালো খেলছি বলে তৃপ্তির ঢেঁকুর তোলা যাবে না। আমাকে আরো কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, নিজের লক্ষ্যে অবিচল থাকতে হবে। গ্রুপ পর্বে আমাদের আরো চারটি ম্যাচ রয়েছে এবং সেমিতে যেতে হলে আমাদের সেগুলোতে ভালো খেলে জিততে হবে। আমার লক্ষ্য এখন সেদিকেই। সেজন্য নিজেকে সতেজ রাখতে এবং নিজের খেলাটা উপভোগ করার চেষ্টা করছি এই মুহূর্তে।

মন্তব্য