kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ইতিহাস বদলানোর অপেক্ষায় পাকিস্তান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ জুন, ২০১৯ ১২:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ইতিহাস বদলানোর অপেক্ষায় পাকিস্তান

বিশ্ব ক্রিকেটের "হটকেক" ম্যাচ আজ। ভারত-পাকিস্তান লড়াই মানে অন্যরকম এক আবহ। ক্রিকেটের গণ্ডি পেড়িয়ে এতে জড়িয়ে পড়ে আরও অনেক কিছু। রাজনীতি-যুদ্ধ-ক্রিকেট মিলেমিশে একাকার। একটা সময় হরহামেশাই  ক্রিকেটে দেখা মিলত পাক-ভারত লড়াইয়ের। রাজনৈতিক প্রতিকূলতায় কালেভদ্রে এখন এই লড়াইয়ের দেখা মেলে। ম্যানচেস্টারে হতে যাওয়া এই ম্যাচে আজ বেশ কিছু হিসাব নিকাশ মেলানোর বাকি আছে দুই দলেরই। 

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ছয়বারের দেখায় একবারও ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। ব্যাপারটি আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি! এর আগে ১৯৯২, ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭, ২০১১, ২০১৫- এই ছয় বিশ্বকাপে নিজেদের মুখোমুখি লড়াইয়ে প্রত্যেকবার জিতেছে ভারত। এর মাঝে ২০১১ বিশ্বকাপের 
সেমিফাইনালে নিজেদের মাটিতে পাকিস্তানকে ২৯ রানে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছায় ভারত। শেষ পর্যন্ত ২৮ বছর পর তারা সেবার বিশ্বকাপ জেতে।

বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান দেখে হয়তো নির্দ্বিধায় বলা যেত, আজকের ম্যাচে পরিষ্কার ফেভারিট ভারতই। কিন্তু ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত মোট ১৩১ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে পাকিস্তান জিতেছে ৭৩টি ম্যাচ, ভারত ৫৪টি। ১৯ ম্যাচ বেশি জেতা পাকিস্তান তাই এগিয়ে থাকছে এদিক থেকে। এমনকি দুই বছর আগে দুই দলের সর্বশেষ দেখায় আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে রীতিমত উড়িয়ে দিয়েছিল সরফরাজ আহমেদের দল। ভারতকে সে ম্যাচে তারা হারিয়েছিল ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে। 

সামগ্রিক মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে পাকিস্তান। ঠিক উল্টা চিত্র বিশ্বকাপে। ভারত এখানে অপরাজিত তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে। আজ কি তাহলে সরফরাজ আহমেদের দল ইতিহাস বদলাতে পারবে? নাকি কোহলির দল এগিয়ে যাবে আরেকটু? সেটা জানার জন্য অপেক্ষা আর মাত্র কয়েক ঘন্টার।

বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান লড়াইঃ
১৯৯২ - গ্রুপ পর্ব, ভারত ৪৩ রানে জয়ী
১৯৯৬- কোয়ার্টার ফাইনাল, ভারত ৩৯ রানে জয়ী
১৯৯৯- সুপার সিক্স, ভারত ৪৭ রানে জয়ী
২০০৩- গ্রুপ পর্ব, ভারত ৬ উইকেটে জয়ী
২০১১- সেমিফাইনাল, ভারত ২৯ রানে জয়ী
২০১৫- গ্রুপ পর্ব, ভারত ৭৬ রানে জয়ী

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা