kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

অজিরা শিরোপা জয়ের অবস্থায় নেই; মানেন না ওয়াহ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুন, ২০১৯ ১৮:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অজিরা শিরোপা জয়ের অবস্থায় নেই; মানেন না ওয়াহ

স্টিভ ওয়াহর মতে শিরোপা প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে পরাজিত হওয়াহর পরও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার ট্রফি জয়ের পথ রুদ্ধ হয়ে যায়নি। এবারের বিশ্বকাপে ওভালে গত রবিবার ভারতের কাছে ৩৬ রানে হেরে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পায় অস্ট্রেলিয়া। অ্যারন ফিঞ্চের দল ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের স্বল্প রানে আটকাতে ব্যর্থ হয় এবং তারপর বড় রান তাড়া করতে তাদের ধুঁকতে হয়েছে। যে কারণে অনেক সমালোচকের মতে তারা টুর্নামেন্টের শিরোপা জয়ের মত অবস্থায় নেই।

তবে দুই বার বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ওয়াহর দৃঢ় বিশ্বাস দশ দলের এ টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে যেতে জয়ের ধারায় ফেরার মত প্রয়োজনীয় গভীরতা তার দেশের আছে। ওয়াহ বলেন, 'এ পরাজয়ের ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে অনেক সময় হাতে থাকায় হতাশ হওয়ার কিছু নেই। সেমিফাইনাল পর্যন্ত আসতে আসতে তাদের ব্যাটিং লাইন আপ ও বোলিং আরও উন্নত হবে। লর্ডসে শিরোপা হাতে নেওয়ার সম্ভাবনা শীর্ষ ছয়টি দলেরই আছে এমন বিশ্বাস থাকায় এবারের বিশ্বকাপটি এখন পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত।'

ভারতীয় দলের জ্বলে ওঠার শক্তি মোকাবেলায় সক্ষম অস্ট্রেলিয়ার কয়েকজন ব্যাটসম্যানদের একজন গ্লেন ম্যা´ওয়েল। অনেক বেশি আগ্রাসী হওয়াহর মূল্য দেয়ার আগে ১৪ বল মোকাবেলায় পাঁচটি বাউন্ডারির সাহায্যে ২৮ রান করেছেন তিনি। শেষ দিকে পর পর উইকেট পড়ে যাওয়াহয় ভারতের সহজ জয়ের আগে অস্ট্রেলিয়া ব্যাটিং লাইনআপের বাকি সদস্যরা খুব ধীর গতিতে রান তুলেছে। এমনকি এক পর্যায়ে ফিঞ্চের দলের প্রয়োজনীয় রান রেট হয়ে দাঁড়ায় ১১তে।

তবে ওয়াহর মতো অস্ট্রেলিয়ার অ্যাপ্রোচ সমর্থন করা ম্যাক্সওয়েলের বিশ্বাস ভারত ও টুর্নামেন্টে ফেবারিট ইংল্যান্ডের মত তাদের সামান্য পরিবর্তন আনা দরকার। ম্যাক্সওয়েল বলেন, 'আমি মনে করিনা আমাদের সব কিছু পরিবর্তন করতে হবে এবং আমরা অনেক দূরে আছি। আমাদের সামান্য কিছু বিষয়ে পরিবর্তন আনতে হবে পাশাপাশি ভাগ্যও আমাদের পক্ষে থাকতে হবে। রান রেট আমাদের সাধ্যের মধ্যেই রাখতে চেষ্টা করছিলাম। তবে সত্যিকারার্থেই তারা বোলিং-ফিল্ডিং খুব ভালো করেছে। তাদের কৌশলটা কার্যত খুবই ভাল ছিল এবং খুব তাড়াতাড়ি আমাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করেছিল।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা