kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

সমকামী প্রেম : ভারতের নারী ক্রীড়াবিদকে বাড়ি ছাড়া করার হুমকি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মে, ২০১৯ ২০:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সমকামী প্রেম : ভারতের নারী ক্রীড়াবিদকে বাড়ি ছাড়া করার হুমকি

সম্প্রতি নিজের সমকামী সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে এনেছেন ভারতের দ্রুততম মানবী দ্যুতি চাঁদ। তার সঙ্গে ওড়িশার চাকা গোপালপুরের একটি মেয়ের সম্পর্ক রয়েছে। সাক্ষাৎকারে দ্যুতি চাঁদ বলেন, আমি আমার সোলমেটকে খুঁজে পেয়েছি। আমার মনে হয় সবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতাটা থাকা উচিৎ যে সে কার সঙ্গে থাকবে। আমি সব সময় সমলিঙ্গ সম্পর্কের সমর্থনে কথা বলেছি। একটা ব্যাক্তির উপর নির্ভর করে। দ্যুতি চাঁদই প্রথম ক্রীড়াবিদ যিনি সবার সামনে তার সমলিঙ্গ সম্পর্কের কথা ঘোষণা করলেন।

কিন্তু এজন্য তার পরিবার বেজায় চটে গেছে। দ্যুতি চাঁদের বাবা-মা কোনো কথা না বললেও তার দিদি (বড় বোন) তাকে পরিবার ছাড়া করার হুমকি দিয়েছেন সঙ্গে তাকে জেলে পাঠানোর কথাও বলেছেন। দ্যুতি বলেন, 'আমার পরিবারের উপর বড় বোনের একটা ক্ষমতা রয়েছে। আবার দাদাকে ও বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিল, কারণ ওর স্ত্রীকে দিদি পছন্দ করত না। ও আমাকে হুমকি দিয়েছে একইভাবে বাড়ি ছাড়া করার। কিন্তু আমি নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার যোগ্যতা রাখি। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি এটা নিয়েই থাকব এবং সবাইকে জানিয়েই চলব।'

দ্যুতি আরও বলেন, 'দিদির মনে হয় সম্পত্তির উপর লোভ রয়েছে। ও আমাকে বলেছে এই সম্পর্কের আমাকে জেলেও পাঠাতে পারে। আমি আমার অ্যাথলেটিক্স ক্যারিয়ার চালিয়ে যাব। আগামী মাসে আমি বিশ্ব ইউনিভার্সিটি গেমসে অংশ নেব। আশা করছি তার পর এই বছরের শেষে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের যোগ্যতাও অর্জন করতে পারব। আমার লক্ষ্য পরের অলিম্পিক্স, তার জন্যই আমি ট্রেনিং করছি।

সঙ্গীর নাম না জানালেও দ্যুতি ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায় সম্পর্কে অবহিত। আর সেটাই তাকে ভরসা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গীর মত নিয়েই দ্যুতি তাদের সম্পর্কের কথা সমাদের সামনে তুলে ধরেছেন। তিনি পিটিআইকে বলেন, 'আমার গ্রামেরই ১৯ বছরের একটি মেয়ের সঙ্গে আমার পাঁচ বছর ধরে সম্পর্ক রয়েছে। ও বি.এ. দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ভুবনেশ্বর কলেজে পড়ে। আমি যখনই সময় পাই ওর সঙ্গে সময় কাটাই। ও আমার সোলমেট। আমি ওর সঙ্গেই থাকতে চাই।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা