kalerkantho

বুধবার। ১৯ জুন ২০১৯। ৫ আষাঢ় ১৪২৬। ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে আমির, ওয়াহাব আর মেয়ে হারানো আসিফ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মে, ২০১৯ ১৫:৫৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে আমির, ওয়াহাব আর মেয়ে হারানো আসিফ

শোকে মুহ্যমান আসিফ আলী, পুনরায় ফিট হওয়া মোহাম্মদ আমির এবং ওয়াহাব রিয়াজকে আজ বিশ্বকাপের জন্য পাকিস্তানের ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গতকাল আসিফের ১৮ মাস বয়সী কন্যা মারা গেছেন। পাকিস্তান দলের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হক আজ এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, আসিফ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে রবিবার যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া কন্যা নুর ফাতিমার দাফন শেষে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন আসিফ।

খারাপ পারফরমেন্সের কারণে প্রাথমিক দল থেকে পেস তারকা আমিরকে বাদ দেয়া হয়েছিল। তবে জলবসন্তের কারণে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ চার ওয়ানডে না খেলা সত্ত্বেও তাকে চূড়ান্ত দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে পাকিস্তান রোববার ৪-০ ব্যাবধানে পরাজিত হয়েছে। সিরিজের প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে চার ওয়ানডের প্রতি ম্যাচে গড়ে পাকিস্তান ৩৫০-এর অধিক রান হজম করায় আরেক বাঁ-হাতি পেসার রিয়াজকে দলে ডাকতে বাধ্য হন নির্বাচকরা। ইনজামাম জানান, তার অভিজ্ঞতার কারণে রিয়াজকে একটা সুযোগ দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, 'আমি মনে করি ইংল্যান্ড সিরিজে আমাদের বোলিংয়ে ঘাটতি দেখা গেছে, যে কারণে আমরা রিয়াজকে দলে অর্ন্তুক্ত করেছি।'

২০১১ এবং ২০১৫ দু’টি বিশ্বকাপ খেলা অভিজ্ঞ ৩৩ বছর বয়সী রিয়াজ দুই বছর আগে যুক্তরাজ্যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তার ৭৯ ম্যাচ ক্যারিয়ারের শেষ ওয়ানডে খেলেছেন। প্রাথমিক দলে থাকলেও ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াডে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হয়েছেন ফাস্ট বোলার জুনাইদ খান, অলাউন্ডার ফাহিম আশরাফ এবং ওপেনার আবিদ আলী।

বিশেষ করে জুনাইদ খানের জন্য খবরটি ছিল অনেক বেশি হাতশার। কেননা গত দুই বিশ্বকাপের দলে থাকার পরও খেলার সুযোগ হয়নি তার। জুনাইদ ২০১১ বিশ্বকাপে দলে থেকেও খেলার সুযোগ পাননি এবং ২০১৫ আসরে ইনজুরির কারণে নাম প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয়েছিলেন। রক্তে ভাইরাসের আক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা লেগ স্পিনার শাদাব খান দ্রুতই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

পাকিস্তান বিশ্বকাপ দল : সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), ফখর জামান, ইমাম উল হক, আসিফ আলী, বাবর আজম, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ হাফিজ (ফিটনেসের ওপড় নির্ভরশীল), সাদাব খান, ইমাদ ওয়াসিম, হাসান আলী, ওয়াহাব রিয়াজ, শাহিন আফ্রিদি, মোহাম্মদ আমির মোহাম্মদ হাসনাইন, হারিস সোহেল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা