kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

ফিক্সিং নিয়ে আবার মুখ খুললেন আফ্রিদি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মে, ২০১৯ ১৫:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফিক্সিং নিয়ে আবার মুখ খুললেন আফ্রিদি

এক আত্মজীবনী লিখে তুলকালাম ফেলে দিয়েছেন শহিদ আফ্রিদি। সাবেক পাকিস্তান তারকার এই বইয়ে উঠে এসেছে নানা বিতর্কিত বক্তব্য। যার মধ্যে অন্যতম হলো ২০১০ সালে ইংল্যন্ডে সালমান বাট, পেসার মোহাম্মদ আমির ও আসিফের স্পট ফিক্সিং ইস্যু। আফ্রিদি তার বইতে লিখেন তিনি আগে থেকেই জানতেন স্পট ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত আমির, সালমান ও আসিফ। তার বইয়ে এই বক্তব্যের পর পাকিস্তানে যে সমালোচনা তৈরি হয়েছে, তার প্রেক্ষিতে আবারও মুখ খুলতে হলো আফ্রিদিকে।

সম্প্রতি সময়ে এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সেই সময়ের ফিক্সিং ইস্যু নিয়ে অনেক কথাই বলেন শহীদ আফ্রিদি। প্রমাণ পেয়েও আমিরদের ফিক্সিং কাণ্ডের আগে নিশ্চুপ ছিলেন তিনি। মূলত জুয়াড়িদের সঙ্গে ফিক্সিংয়ে জড়িত ক্রিকেটারদের ম্যাসেজ দেখে ফেলেন আফ্রিদি। সম্প্রতি সময়ে এই বিষয়ে আবারো মুখ খুলেছেন পাকিস্তানের এই সাবেক অধিনায়ক। তিনি বলেন এই তিন ক্রিকেটার এখনো মনে করেন সাংবাদিকদের কাছে এই তথ্য ফাঁস করার পেছনে আফ্রিদির হাত রয়েছে!

এই অভিযোগ উড়িয়ে আফ্রিদি বলেন, 'সালমান-আমির-আসিফ এখনো মনে করে সাংবাদিকদের আমিই জানিয়েছেন এই ব্যাপারে। আসলে ঘটনা সত্য নয়। আসলে ইংল্যান্ডে বসবাস করা আমার এক বন্ধু আমাকে না জানিয়েই মিডিয়ায় ব্যাপারটি জানিয়েছে। তারপর তারা নিজ দায়িত্বে বিষয়টি তদন্ত করে দেখেছে এবং এটির সত্যতা খুঁজে পেয়েছে।'

সালমান বাটের এজেন্ট ও ম্যানেজার মাজহার মাজিদ ইংল্যান্ডে এক দোকানে মোবাইল ঠিক করাতে যাওয়ার পর ঘটনাক্রমে তার মেসেজগুলো দোকানদারের মাধ্যমে চলে যায় আফ্রিদির কাছে। ওই দোকানদার ছিলেন আফ্রিদির এক বন্ধুর বন্ধু। বিষয়টি আফ্রিদি পরে কোচ ওয়াকার ইউনুস এবং পিসিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানান। কিন্তু তারা এ বিষয়ে কোনো উচ্যবাচ্য করেননি। বরং আফ্রিদিকে নাকি চুপ থাকতে বলেছিলেন। এই অভিযোগ পেয়ে তখনকার টিম ম্যানেজার ইয়ার সাঈদ নাকি বলেছিলেন, 'এসব নিয়ে আমাদের করার কিছু নেই।'

মন্তব্য