kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

বিশ্বকাপের বিখ্যাত পাঁচ ইনিংস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মে, ২০১৯ ১৭:৪৭ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বিশ্বকাপের বিখ্যাত পাঁচ ইনিংস

রাওয়ালপিন্ডিতে উইন্ডিজ কিংবদন্তি ভিভ রিচার্ডসের অধিনায়কোচিত ইনিংস থেকে ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ড তারকা মার্টিন গাপটিল। আইসিসি বিশ্বকাপে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ পাঁচ ইনিংস। যেগুলো ক্রিকেট বিশ্বকাপের ইতিহাসে বিখ্যাত হয়ে আছে।

মার্টিন গাপটিল-২৩৭* প্রতিপক্ষ উইন্ডিজ,২০১৫
বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের মালিক নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল। ২০১৫ বিশ্বকাপে ওয়েলিংটনে উইন্ডিজের বিপক্ষে তার অপরাজিত ২৩৭ রানের ইনিংসটি এ তালিকার শীর্ষে। ইনিংস ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত টিকে থেকে ১৬৩ বলে ২৪টি বাউন্ডারি ও ১১টি ছক্কায় স্মরণীয় এ ইনিংসটি খেলেন গাপটিল। তার এই অসাধারণ ব্যাটিং নৈপুণ্যে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৯৩ রান তোলে। জবাবে ২৫০ রানে গুটিয়ে যায় উইন্ডিজ। বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ হলেও ওয়ানডে ইতিহাসে গাপটিলের ইনিংসটি জায়গা পেয়েছে দ্বিতীয় স্থানে।

ক্রিস গেইল-২১৫ প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে-২০১৫
কোয়ার্টারফাইনালে গাপটিলের জ্বলে ওঠার আগে বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন উইন্ডিজের 'দানব' ক্রিস গেইল। ইনিংসের শুরুতেই এলবিডব্লিউর হাত থেকে বেঁচে যাওয়ার পর বিধ্বংসী রূপ ধারন করেন গেইল। তার ঝড়োগতির ব্যাটিংয়ে ৩৫ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রানে পৌঁছে যায় ক্যারিবীয়রা। ১০৫ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর গেইল দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মাত্র ৩৩ বলে। ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ১০টি বাউন্ডারি ও ১৬টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকান।

গ্যারি কারস্টেন-১৮৮* প্রতিপক্ষ সংযুক্ত আরব আমিরাত, ১৯৯৬
বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে প্রথম সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েন গ্যারি কারস্টেন। ১৯৯৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে আগে ব্যাটিং করতে নেমে কারস্টেনের রেকর্ড গড়া ইনিংসের সুবাদে দক্ষিণ আফ্রিকা ৫ উইকেট হারিয়ে ৩২৫ রানের বিশাল স্কোর গড়ে। ১৫৯ বলে ১৩ চার এবং ৬ ছক্কায় অপরাজিত ১৮৮* রান করেন। জবাবে সংযুক্ত আরব আমিরাত ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান করলে প্রোটিয়ারা ১৬৯ রানের বিশাল জয় পায়।

সৌরভ গাঙ্গুলী-১৮৩ প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, ১৯৯৯
ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে রেকর্ড গড়ার অন্যতম একটি স্মরণীয় দিন। নিজেদের সর্বোচ্চ আগ্রাসী এবং সেরা ফর্মের পরিচয় দিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলী এবং রাহুল দ্রাবিড় তৎকালীন চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কার বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করেছেন। ওই সময়ে ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ৩১৮ রানের জুটি গড়েন তারা। দ্রাবিড় ১২৯ বলে করেন ১৪৫ রান। তিন অংকের কোটা পার করার পর আক্রমণের ধার আরো বাড়িয়ে দেন গাঙ্গুলী। মাত্র ৩৯ বলে ৮৩ রান করেন তিনি। অসাধারণ এ ইনিংস খেলার পথে তিনি ১৭টি বাউন্ডারি এবং ৭টি ছক্কা হাঁকান। ইনিংসের এক বল বাকি থাকতে তিনি আউট হন। কিন্তু বিশ্বকাপে তার করা ১৮৩ রানই বিশ্বকাপে ভারতীয় কোন ব্যাটসম্যানের ব্যক্তিগ সর্বোচ্চ রানের ইনিংস।

ভিভ রিচার্ডস-১৮১ প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, ১৯৮৭
টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে পরাজয়ের ধাক্কা তখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি উইন্ডিজ। তার ওপর রবি রত্নানায়েকের পর পর দুই বলে কার্লাইল বেস্ট ও রিচি রিচার্ডসন আউট হওয়া পরিস্থিতি আরো খারাপ করে দেয়। এরপরই উইকেটে আসেন অধিনায়ক ভিভ রিচার্ডস। তার প্রথম কাজ ছিল হ্যাটট্রিক ঠেকানো এবং এর পর খারাপ অবস্থা থেকে দলকে টেনে তোলা। এমন অবস্থায় ৬২ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এই মহাতারকা।

এরপরই রান উৎসবে মেতে উঠেন তিনি। ৯৭ বলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে দশম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। পরবর্তী ৮১ রান করেন মাত্র ৩৩ বলে। একটি ছক্কা হাঁকিয়ে বিশ্বকাপে কপিল দেবের (১৭৫) সর্বোচ্চ ব্যাক্তিগত রানের রেকর্ড ভঙ্গ করেন রিচার্ডস। অধিনায়ক মাঠে নামার সময় উইন্ডিজের সংগ্রহ ছিল ৪৫/২। ইনিংস শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩৪৩/৪। যার মধ্যে ১৬টি বাউন্ডারি এবং ৭টি ওভার বাউন্ডারিতে রিচার্ডসনের অবদান ছিল ১৮১।

মন্তব্য