kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

আরও আগেই অবসর নিতাম; ভক্তরাই আটকে রাখল : গেইল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মে, ২০১৯ ১৭:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আরও আগেই অবসর নিতাম; ভক্তরাই আটকে রাখল : গেইল

উইন্ডিজের জার্সিতে ক্রিস গেইল আবার বিশ্বকাপে খেলতে পারেন; গত ছয় মাস আগেও তা ভাবা যায়নি। কিন্তু সেটাই আবার ঘটতে চলেছে। ইংল্যান্ডে নিজের পঞ্চম বিশ্বকাপে নামতে চলেছেন এই ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি। কিন্তু আরও দুই বছর আগেই নাকি নিজের ক্যারিয়ারের শেষ দেখার কথা ভেবেছিলেন এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন ভক্তরা। গোটা বিশ্বে লাখো ভক্তরাই গেইলকে বলেছেন, খেলা চালিয়ে যেতে আর তাদের বিনোদন দিয়ে যেতে।

সেই ১৯৯৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে অভিষেক হয়েছিল গেইলের। দিনে দিনে হয়ে উঠেছেন 'ইউনিভার্স বস'। তার ক্রিকেট জীবনের পরিসংখ্যান বলছে ১০৩ টেস্ট খেলা হয়ে গেছে; ওয়ানডে খেলেছেন ২৮৯টি। বিশ্বের প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন। পেয়েছেন ভক্তদের অসীম ভালোবাসা। আর কী পাওয়ার আছে তার ক্রিকেট থেকে? গেইল স্বীকার করে নিয়েছেন, তার আর কিছু পাওয়ার নেই, প্রমাণ করার নেই। তিনি শুধু এখন খেলে চলেছেন তার ভক্তদের জন্য।

গেইলের মন্তব্য, 'আমি মিথ্যা বলছি না। ভক্তদের কথা ভেবেই এখনও ক্রিকেটটা খেলে যাচ্ছি। বছর দুয়েক আগে হয়তো অবসর নেওয়ার একটা ভাবনা এসে থাকতে পারে, কিন্তু তার পরেই ভক্তরা বলতে থাকল, খেলা ছেড়ো না। ওরাই আমাকে এখনও চালিয়ে নিয়ে চলেছে। জানি, কোনোকিছুই চিরস্থায়ী নয়। আশা করছি ওদের জন্য আরও কয়েকটা ম্যাচ খেলে যেতে পারব। বিশ্বকাপ জেতার জন্য ওরাই তো প্রেরণা।'

ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি স্বীকার করেছেন, এতদিন ধরে যে দেশের জার্সিতে মাঠে নামতে পারবেন তা তিনিও ভাবেননি। গেইলের ভাষায়, 'সত্যি, সময়টা কত দ্রুত চলে যায়। কখনও ভাবিনি এতগুলো বিশ্বকাপে খেলতে পারব। কিন্তু পারলাম। এটাই প্রমাণ করছে, ক্রিকেট জীবনে আমি কতটা ধারাবাহিক ছিলাম। এই ধারাবাহিকতার প্রশংসাই তো সবাই করে। গত দুই বছরে প্রচুর পরিশ্রম করেছি। আর তার ফল পাচ্ছি। ভক্তরা আমাকে দেখতে চাইছে আর আমিও ভক্তদের চাহিদা মেটাতে পারছি।'

মন্তব্য