kalerkantho

একে একে বিদেশি তারকারা আইপিএল ছাড়ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১৯:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একে একে বিদেশি তারকারা আইপিএল ছাড়ছে

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। আকর্ষণীয় এই টুর্নামেন্টে বিশ্বের সকল তারকারাই অংশ নিচ্ছেন। তবে আসন্ন বিশ্বকাপে নিজ নিজ দলে যোগ দিতে টুর্নামেন্ট শেষ না করেই আইপিএল থেকে বিদায় নিতে শুরু করেছেন বিদেশি তারকা খেলোয়াড়রা। এই তালিকায় সবার আগে আছে ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো।

গত মঙ্গলবার রাতে নিজের শেষ ইনিংস খেলেছেন সান রাইজার্স হায়দারাদের বেয়ারস্টো। চলতি আসরে দলের হয়ে ১০ ম্যাচে ৪৪৫ রান করা এই তারকা খেলোয়াড় নিজের শেষ ইনিংসে ০ রানে আউট হয়েছেন। আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে শুর হওয়া বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ায় সতীর্থদের সঙ্গে যোগ দিতে দলটির আরেক বিদেশি তারকা ডেভিড ওয়ার্নার আইপিএল ছাড়ছেন আগামী সপ্তাহে।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই লিগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১২ মে। প্লে অফ খেলার জন্য আটটি দলকেই নির্ভর করতে হবে নিজ নিজ বেঞ্চের খোলায়াড়দের ওপর। প্রবীণ ক্রীড়া সাংবাদিক আয়াজ মেননের বিশ্বাস, বিদেশি এই তারকা খেলোয়াড়রা চলে গেলে আইপিএল অবশ্যই জৌলুস হারাবে। বার্তা সংস্থা এএফপিকে মেনন বলেন, 'অবশ্যই এর একটা বড় প্রভাব আছে।'

তিনি বলেন,' আপনি যদি ডেভিড ওয়ার্নার, জনি বেয়ারস্টো এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের আন্দ্রে রাসেলের মত খেলোয়াড়দের দিকে তাকান তবে অবশ্যই এটা উজ্বলতা ও তারকা মূল্য হারাবে। আইপিএলের চলতি আসরে এই পর্যন্ত সর্বোচ্চ রানের মালিক ওয়ার্নার। ওপেনার হিসেবে সান রাইজার্সকে বড় ভিত্তি এনে দিচ্ছেন তিনি। সুতরাং তার বদলি হিসেবে কাউকে পাওয়াটা দলের জন্য কঠিন হবে।'

ওয়ার্নার এবং বেয়ারস্টো ডান-বাম কম্বিনেশন আইপিএল ইতিহাসে রেকর্ড ১৮৫ রানের ওপেনিং জুটি গড়েছে। মেনন আরো বলেন, 'তবে এই সব বিষয় অনুমেয়ই ছিল এবং সব দলেরই ব্যাকআপ খেলোয়াড় আছে। এটা ভারতীয় কিছু মেধাবী খেলোয়াড়দের খেলার এবং প্রমাণের সুযোগ করে দেবে।'

নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের পরিবর্তে হায়দারাবেদর নেতৃত্ব দেয়া ভুবনেশ্বর কুমার বলেন বিদেশি খেলোয়াড়দের চলে যাওয়ার জন্য তার দল প্রস্তুত আছে। কুমার বলেন, 'এই খেলোয়াড়েরা খুব ভালো করেছে, তাতে কোন সন্দেহ নেই। তবে আমরা মর্মাহত হবনা। বেয়ারস্টোর বদলি খেলোয়াড় আমাদের আছে। তবে তিনি যেভাবে পারফরমেন্স করেছেন, অবশ্যই আমরা তাকে মিস করবো।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দলগুলোর একটি হবে ২০০৮ চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালস। প্রথম সন্তান জন্মের জন্য ইতোমধ্যেই দল ছেড়ে গেছেন বেয়ারস্টো। বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে যোগ দিতে এই সপ্তাহেই রয়্যালসের দুই সতীর্থ বেন স্টোকস এবং জোফরা আর্চার ইংল্যান্ড চলে যাবেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। ব্রিজবেনে অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দিতে আগামী মপ্তাহে ওয়ার্নারের মত স্টিভ স্মিথও অস্ট্রেলিয়ায় উড়াল দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাজস্থান কোচ প্যাডি আপটোন বলেন,' খেলোয়াড়দের চলে যাওযার বিষয়টি আমরা জানতাম। বদলি হিসেবে আমাদের কিছু ভাল খেলোয়াড় আছে।'

দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে খেলা দক্ষিণ আফ্রিকার কুইন্টন ডি কক এবং কাগিসো রাবাদা উভয়েই চলে যাচ্ছেন। তারা দুজনেই খুব ভাল করছিলেন। সুতরাং তাদের চলে যাওযাটা দলটির হন্য বড় ক্ষতি। চলে যাচ্ছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর ইংল্যান্ড অলাউন্ডার মঈন আলি, চেন্নাই সুপার কিংসের দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার ইমরান তাহির। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপ দলে ডাক পেলে দেশে ফিরে যাবেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের ত্রাণকর্তা আন্দ্রে রাসেলও।

মন্তব্য