kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

এবার আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতেও হয়ে যাক দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১৭:৪১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এবার আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতেও হয়ে যাক দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি

দেশের হয়ে প্রথম 'লিস্ট এ' ডাবল সেঞ্চুরির পর সৌম্যর ভাবলেশহীন উদযাপন। ছবি : সংগৃহীত

একসময় ভারত তথা বিশ্বের ভয়ংকরতম ওপেনিং জুটি ছিলেন শচীন টেন্ডুলকার এবং বীরেন্দ্র শেবাগ। মাস্টার ব্লাস্টার শচীন বলেছিলেন, ওয়ানডে ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরিটা বিধ্বংসী শেবাগের ব্যাট থেকেই আসবে। কিন্তু শচীন নিজেই আজ থেকে ১৯ বছর আগে ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে ইতিহাসের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেলেন! তারপর আরও ৭টি ডাবল সেঞ্চুরি হয়েছে ওয়ানডেতে। শেবাগও নাম লিখিয়েছেন এই তালিকায়। তবে সবাইকে পেছনে ফেলে ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেছেন শচীনের উত্তরসূরি রোহিত শর্মা।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০১৪ সালে ইডেন গার্ডেনে ২৬৪ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলেন রোহিত; যা ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান। আগের বছরই সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই ২০৯ এবং ২০১৭ সালে ২০৮* রানের ইনিংস খেলেন ওয়ানডেতে তিন ডাবলের মালিক রোহিত। তবে ওয়ানডেতে ডাবলের স্বপ্ন প্রথম দেখিয়েছিলেন পাকিস্তানের সাঈদ আনোয়ার। ১৯৯৭ সালে ভারতের বিপক্ষে চেন্নাইয়ে খেলেছিলেন ১৪৬ বলে ১৯৪ রানের সেই বিখ্যাত ইনিংস। শচীনের ডাবলের আগে ১৩ বছর পাকিস্তান কিংবদন্তির সেই ইনিংসটাই ছিল ওয়ানডেতে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ।

এবার চোখ ফেরানো যাক বাংলাদেশের দিকে। টাইগারদের হয়ে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের রেকর্ডটা যথারীতি তামিম ইকবালের। প্রায় সব রেকর্ডেই দেশের সেরা এই ব্যাটসম্যান ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলেছিলেন ১৩৮ বলে ১৫৪ রানের ইনিংস। এক দশক ধরে সেটাই শীর্ষস্থান দখল করে আছে। আর ঘরোয়া 'লিস্ট এ' ক্রিকেটে রকিবুল হাসানের ১৩৮ বলে ১৯০ রানের ইনিংস গত দুই বছর ধরে শীর্ষে ছিল। তবে মঙ্গলবার সব সব রেকর্ড ওলট পালট করে দিয়েছেন বিধ্বংসী ওপেনার সৌম্য সরকার। আসন্ন বিশ্বকাপে যাকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন বাংলাদেশের, সেই সৌম্য ১৫৩ বলে ২০৮* রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দেশের প্রথম 'লিস্ট এ' ডাবল সেঞ্চুরিয়ান হয়ে গেলেন।

তরুণ এই ব্যাটিং অল-রাউন্ডারের ওপর দলের ভরসার জায়গাটা একটু ভিন্ন। ধারাবাহিকতার যথেস্ট অভাব আছে তার। কিন্তু নিজের দিনে বিশ্বের যে কোনো বোলারকে চোখের জলে নাকের জলে করে দেওয়ার ক্ষমতা একমাত্র সৌম্যরই আছে। গতকালই মেরেছেন ১৬টি ছক্কা, যা দেশের সর্বোচ্চ এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তৃতীয় সর্বোচ্চ। ওয়ানডেতে সৌম্যর সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস ১১০ বলে ১২৭*। ২০১৫ সালে তার ক্যারিয়ারের সোনালী সময়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছিলেন ম্যাচ জেতানো এই ইনিংস।

৪ বছরের ক্যারিয়ারে ভালো সময়ের পাশাপাশি খারাপ সময়টাই বেশি দেখেছেন সৌম্য। দল থেকে বাদ পর্যন্ত পড়েছিলেন। আবার পারফর্ম করে ফিরেছেন। এবারের বিশ্বকাপে দল তার ওপর আস্থা রেখেছে; কারণ সৌম্যর দিনে তিনিই সেরা। 'লিস্ট এ' ক্রিকেটে দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান নিশ্চয়ই চাইবেন একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচেও দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান হতে...। না এটা অতিকথন নয়। তাছাড়া যে কেউই এটা যে কোনো সময় করে ফেলতে পারেন। বড় কথা হলো, সৌম্য এটাকে চাপ হিসেবে না নিয়ে অনুপ্রেরণা হিসেবেই নিতে চাইবেন।

মন্তব্য