kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

ফিক্সিংয়ের আলোচনায় আমার নামও উঠত : ধোনি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফিক্সিংয়ের আলোচনায় আমার নামও উঠত : ধোনি

২০১৩ সাল মহেন্দ্র সিং ধোনির জন্য একটি কলঙ্কময় বছর। নিজে কোনো অপরাধ না করেও স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারির আলোচনায় চলে এসেছিলেন চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক। সেই কেলেঙ্কারির পর দুই বছর আইপিএলে নিষিদ্ধ ছিল চেন্নাই। গত আসরে ফিরেই শিরোপা জিতেছে ধোনির দল। কিন্তু ফিক্সিং কেলেঙ্কারি এবং নিষেধাজ্ঞার দুই বছর খুব বাজেভাবে কেটেছে তাদের। খুব ঠাণ্ডা মাথায় সামলাতে হয়েছে পরিস্থিতি। সম্প্রতি একটি তথ্যচিত্রে সেই দিনগুলোর কথা বলেছেন 'ক্যাপ্টেন কুল'।

'রোর অফ দ্য লায়ন' নামের ওই তথ্যচিত্রে ধোনি বলেছেন, 'সমস্যা হলো, মানুষ যখন ধরে নেয় কেউ খুব শক্ত মানসিকতার, তখন বেশিরভাগ সময়েই কেউ তার কাছে এসে জানতে চায় না, কেমন চলছে সব। সেই সময়টায় আমি এই ব্যাপারে অন্য কারও সঙ্গে কথা বলতাম না। তবে ব্যাপারটা আমাকে খুব অস্বস্তিতে রাখত। আমি চাইতাম না কোনোকিছু আমার ক্রিকেটের উপর প্রভাব ফেলুক। আমার কাছে, ক্রিকেটই সব।'

দুটি বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় অধিনায়ক প্রশ্ন তুলেছেন এই ফিক্সিংয়ের ঘটনায় ক্রিকেটারদের কী দোষ ছিল? তার ভাষায়, 'আমাদের সেই সময় শাস্তি প্রাপ্য ছিল। কিন্তু কত বড় শাস্তি? শেষ পর্যন্ত আমরা জানতে পারলাম, দুই বছরের জন্য চেন্নাইকে নির্বাসিত করা হচ্ছে। শাস্তির কথা ঘোষণা হওয়ার পর অধিনায়ক হিসেবে প্রশ্ন ওঠানো যায় যে এতে দলের দোষ কোথায়? এটা ঠিক আমাদের ফ্র্যাঞ্চাইজির ভুল ছিল। কিন্তু তাতে কী ক্রিকেটারেরা যুক্ত ছিল? আমরা কী দোষ করলাম যে আমাদের এত কিছুর মধ্যে দিয়ে যেতে হলো?'

আইপিএলের এই ফিক্সিং বিতর্কে নাকি ধোনির দিকেও আঙুল তুলেছিলেন কেউ কেউ, 'ফিক্সিং নিয়ে কথাবার্তায় আমার নামও উঠত। মিডিয়া, সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন ভাবে সবকিছু দেখানো হতো, যেন ফিক্সিংয়ে আমাদের দলও জড়িত, আমি জড়িত! এটা কী সম্ভব? হ্যাঁ, এটা ঠিক যে কেউ স্পট ফিক্সিং করতে পারে। আম্পায়াররা পারে, ব্যাটসম্যান বা বোলাররা পারে, কিন্তু ম্যাচ ফিক্সিং দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটার যুক্ত না থাকলে কীভাবে সম্ভব?'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা