kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

'এই তরুণরাই ইংল্যান্ডের প্রত্যাশা পূরণ করবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'এই তরুণরাই ইংল্যান্ডের প্রত্যাশা পূরণ করবে'

অনুশীলনে ইংলিশ ফুটবলাররা। ছবি : এএফপি

লিভারপুলের মিডফিল্ডার জর্ডান হেন্ডারসন বলেছেন, আলোড়ন সৃষ্টি করা তারুণ্য নির্ভর দলটিই ২০২০ ইউরো বাছাইয়ে ইংল্যান্ডের যাওয়া প্রত্যাশা পূরণ করবে। লন্ডনের ওয়েম্বলিতে শুক্রবার চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বাছাইপর্বের মিশন শুরু করবে ইংল্যান্ড। ম্যাচটিকে সামনে রেখে গ্যারেথ সাউথগেটের দলটি ২০১৯ সালে প্রথমবার একত্রিত হয়েছে। এরপর বাছাইপর্বের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে মঙ্গলবার মন্টেনাগ্রো যাবে ইউরো ২০২০ আসরের শিরোপার অন্যতম দাবিদারেরা।

১৯৯০ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে সেমি-ফাইনালে পৌছানো ইংল্যান্ড ২০১৮ সালে নতুন শুরু হওয়া ন্যাশনাল লিগে স্পেন ও ক্রেয়োশিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে গিয়ে বছরটিকে আরো স্মরণীয় করে রেখেছে। দীর্ঘ এক যুগ ধরে ব্যর্থতার গণ্ডিতে ঘুপরপাক খাওয়া দলটি এবার দারুণ অগ্রগতি দেখিয়েছে। হেন্ডারসনের বিশ্বাস সাউথগেটের এই স্কোয়াডের সেরাটা দেখানো এখনো বাকী।

প্রতিশ্রুতিশীল টিনএজার জর্ডান সানচো ও কালাম হাডসন-ওডয় এবং ২০ বছর বয়সি ডেকলান রিচ ইংল্যান্ড স্কোয়াডে যুক্ত হয়েছে। হ্যারি কেনের নেতৃত্বাধীন দলটি এমনিতেই রাহিম স্টার্লিং, মার্কাস রাসফোর্ড এবং ডেলে আলির আলোয় আলোকিত। কোন রকম শংকাহীনভাবে নতুন অনুভুতির এই দলটির সঙ্গ বেশ উপভোগ করছেন হেন্ডারসন।

ম্যানচেস্টার সিটি ছেড়ে যাওয়ার পর বরুশিয়া ডর্টমুন্ডে নিজেকে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন সানচো। চেলসির হয়ে প্রিমিয়ার লিগে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা হাডসন-ওডয় এখন ট্রাম্পকার্ড হয়ে উঠেছেন। আরো দুইজন তরুণ তুর্কী ইংল্যান্ডের মুল স্কোয়াডে ছিলেন। এরা হলেন চেলসি তারকা রুবেন লফটাস-চিক ও লিভারপুলের ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আর্নল্ড। তবে ইনজুরির কারণে তারা বর্তমানে দলের বাইরে রয়েছেন। হেন্ডারসনের লিভারপুল সতীর্থ যো গোমেজ ইংল্যান্ডের হয়ে ৬ টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেললেও বর্তমানে ভাঙ্গা পা সারিয়ে তুলতে কাজ করছেন।

হেন্ডারসন বলেন, 'দলের এই তরুণরাও দারুন মেধাবী। এটা ভালো দিক। এটি ইংল্যান্ডের জন্য খুবই ইতিবাচক বিষয়। কারণ, কয়েক বছরের মধ্যে আমরা বড় দল ও বড় খেলোয়াড় পেতে যাচ্ছি। তরুণরা সবে মাত্র শুরু করতে যাচ্ছে। তারা আরো অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে কয়েক বছরের মধ্যে আরো বেশি শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করবে। আমারও দায়িত্ব রয়েছে, তাদের সহায়তা করতে হবে। এখানে তারা যেন স্বস্তিবোধ করে সেদিকে মনোযোগ দিতে হবে। এভাবেই একদিন তারা দলকে নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাবে, যেমনটি তারা নিজ নিজ ক্লাবকে এগিয়ে নিচ্ছে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা