kalerkantho

বিবিসি বাংলা অবলম্বনে

৪৬ ছক্কা; ৮০৬ রান; এমন ম্যাচ কয়টা দেখেছে ক্রিকেট?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৪:৫৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৪৬ ছক্কা; ৮০৬ রান; এমন ম্যাচ কয়টা দেখেছে ক্রিকেট?

ছবি : এএফপি

ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের সেন্ট জর্জ দেখল ছক্কার বৃষ্টি। এক ম্যাচে মোট ছক্কা হয়েছে ৪৬টি। যা ক্রিকেটের ওয়ানডে ফরম্যাটে নতুন বিশ্বরেকর্ড। ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে রান তুলেছে ৬ উইকেটে ৪১৮। যার মধ্যে ছিল ২৪টি ছক্কা। গত সপ্তাহেই এক ইনিংসে ২৩ ছক্কার রেকর্ড গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, যা একটি ছক্কার ব্যবধানে টপকে যায় ইংল্যান্ড।

অ্যালেক্স হেলস ও জনি বেয়ারস্টোর ১০০ রানের জুটি দিয়ে শুরু হয় এই ম্যাচ। তবে ইংল্যান্ডের ইনিংসে আলচনার বিষয় ইয়ন মরগ্যান ও জস বাটলার জুটি। যেখানে ২০৪ রানের জুটি আসে মাত্র ২০.২ ওভারে। শেষ পর্যন্ত মরগ্যানের ৮৮ বলে ১০৩ ও বাটলারের ৭৭ বলে ১৫০ রানে ৬ উইকেটে ৪১৮ রানের পাহাড়ে চড়ে ইংলিশরা।

জবাবে ক্রিস গেইলের ব্যাটে জয়ের পথেই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষ ৪ ওভারে দরকার ছিল ৩৮ রান। কিন্তু আদিল রশিদ ৪৮তম ওভারে ৪টি উইকেট তুলে নিলে ৩৮৯ রানে থামে ক্যারিবীয়দের ইনিংস। ক্রিস গেইল ৯৭ বলে ১৬২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন। যাতে ছিল ১৪টি ছক্কা, ১১টি চার। এই ইনিংসেই তিনি বিশ্বের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫০০ আন্তর্জাতিক ছক্কার মাইলফলকে পৌঁছান।

কী কী রেকর্ড হলো এই ম্যাচে?

•এক ম্যাচে ৪৬টি ছক্কা, ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ

•ইংল্যান্ড এক ইনিংসে ২৪টি ছক্কা, যেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পাল্টা ২২টি ছক্কা মেরে চেষ্টা চালায়

•৮০৭ রান, যা দুই দল মিলিয়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান

•জস বাটলার ১২টি ছক্কা মারেন, ইংল্যান্ডের হয়ে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ছক্কা

•বাটলার ৫১ থেকে ১০০ করেন মাত্র ১৫ বলে

•৫০ থেকে ১৫০ করতে বাটলারের বল প্রয়োজন হয় ৩১টি, যা এবি ডি ভিলিয়ার্সের বিশ্ব রেকর্ড দ্রুততম ৩১ বলে সেঞ্চুরির সমান

•গেইল ৫৫ বলে সেঞ্চুরি করেন, যা গেইলের দ্রুততম

•মরগ্যান প্রথম ইংলিশ ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে ৬ হাজার রান তোলেন

•ব্রায়ান লারার পর দ্বিতীয় ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ১০ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন ক্রিস গেইল

২০১৫ বিশ্বকাপের পর ইংল্যান্ড মোট চারবার ৪০০ রান ছুঁয়েছে
৪৮১-৬ প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া নটিংহ্যাম ২০১৮
৪৪৪-৩ প্রতিপক্ষ পাকিস্তান নটিংহ্যাম ২০১৬
৪১৮-৬ প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ গ্রানাডা ২০১৯
৪০৮-৯ প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড বারমিংহাম ২০১৫
দুই দল মিলিয়ে এতো রান আর কবে কোথায় হয়েছে?

৯৮ ওভারে ৮০৭ রান অনেক বেশি, কিন্তু এর চেয়ে বেশি রানও বিশ্ব ক্রিকেট দেখেছে। ২০০৬ সালের ১২ মার্চ জোহানেসবার্গে অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৩৪ রান তুলেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেই ম্যাচে রিকি পন্টিং ১০৫ বলে করেন ১৬৪ রান।

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ বল ও ১ উইকেট হাতে রেখে নির্ধারিত লক্ষ্য টপকে ৪৩৮ রান তোলে। হার্শেল গিবস ১১১ বলে ১৭৫ রানের ইনিংস উপহার দেন। এটিই ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বোচ্চ রানের আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ। যেখানে দুই দল মিলে ৯৯.৫ ওভার ব্যাট করে ৮৭২ রান তুলেছিল।

এর কাছাকাছি গিয়েছিল ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার একটি ম্যাচ। ২০০৯ সালের ১৫ই ডিসেম্বর রাজকোটের সেই ম্যাচে ১০০ ওভারে রান ওঠে ৮২৫। ভারত শুরুতে ব্যাট করে ৪১৪ রান করে। জবাবে তিলেকরাত্নে দিলশানের ১৬০ রানের ইনিংসে ভর করে ৪১১ রান তোলে শ্রীলঙ্কা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা