kalerkantho

আবারও খেলোয়াড় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর অভিযোগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২১:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবারও খেলোয়াড় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর অভিযোগ

ধর্ষণের অভিযোগ মেটার পর ৬ মাস কাটতে না কাটতেই ভারতের টেবিল টেনিস তারকা সৌম্যজিত ঘোষের বিরুদ্ধে আবারও পুলিশের কাছে অভিযোগ করলেন স্ত্রী তুলিকা ঘোষ দত্ত। সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন, বিশ্বাস ভঙ্গ এবং ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ করেছেন তিনি। স্ত্রী তুলিকার অভিযোগে আবারও বিপাকে অর্জুন পুরস্কার জয়ী এই প্যাডেলার।

গতকাল বুধবার বারাসাত থানায় অভিযোগ করলেও আজ বৃহস্পতিবার তুলিকা বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমের সামনে আনেন। এর আগে গত বছর ২১ মার্চ সৌম্যজীতের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনলেও পরে অর্থাৎ আদালতের নির্দেশ মেনে ৩ আগস্ট তূলিকাকে বিয়ে করেন সৌম্যজিত। ডিসেম্বেরের শেষে টিটিএফআই সৌম্যজিতের উপর থেকে নির্বাসনও প্রত্যাহার করে নেয়।

তুলিকার অভিযোগ, এর আগে থেকেই তাকে দিয়ে জোরপূর্বক বিভিন্ন আইনি কাগজে সাক্ষর করিয়েছেন সৌম্যজিত। অনেক ক্ষেত্রে সাক্ষর করতে রাজি না হওয়ায় মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। স্বামী সৌম্যজিত ছাড়াও তুলিকা তার শ্বশুর বাড়ির আরও ৫ জনের বিরুদ্ধে অর্থাৎ মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে বারাসাত থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন এই তরুণী বধূ।

বিয়ের আগে থেকে বিতর্কের কেন্দবিন্দুতে ছিলেন সৌম্যজিত। আদালতের রায়ে অবশেষে বিয়েটা করলেও তা 'মধুর' ছিল না। কারণ কলকাতা উচ্চ আদালতের নির্দেশে একপ্রকার চাপের মুখে দীর্ঘিদিনের বান্ধবীকে বিয়ে করেছিলেন এই টিটি তারকা। সামাজিক রীতি মেনে উত্তর ২৪ পরগনার বারাসতের মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে বিয়ে করেছিলেন সৌম্যজিৎ। কিন্তু মাত্র সাড়ে ৫ মাসেই তাদের দাম্পত্য জীবনে অন্ধকার নেমে এল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা