kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

কোহলির 'নারীবিদ্বেষী' মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:০৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কোহলির 'নারীবিদ্বেষী' মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল!

ছবি : এএফপি

টিভি শোতে নারীবিদ্বেষী মন্তব্য নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটাঙ্গণে এখন তুলকালাম চলছে। দল থেকে বাদ পড়েছেন ঘটনার দুই হোতা লোকেশ রাহুর এবং হার্দিক পাণ্ডিয়া। যে দোষে সাজা পাচ্ছেন পাণ্ডিয়া, রাহুল, সেই একই কথা একটা সময় কোহলির মুখ থেকেও বেরিয়েছিল। পাণ্ডিয়া বেফাঁস মন্তব্য করার পর প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছিলেন। ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি সেদিন কথাগুলো বলার পর ক্ষমা চাইতে হয়নি। কারণ তখন কোহলি এত বড় তারকা নন।

হ্যাঁ, বিরাট কোহলির বহু পুরনো একটি সাক্ষাতকারের ভিডিও এখন সোশ্যাল সাইটে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সেই ভিডিওর সঙ্গে আজকের হার্দিক পাণ্ডিয়া, লোকেশ রাহুলের মিল পেতে পারেন। মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, ২০১৯ সারে আজকের দিনে দাঁড়িয়ে যদি কোহলি এই একই কথা বলতেন! তা হলে কী হতো

সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোহলি এক নারী উপস্থাপকের করা প্রশ্নের জবাব দিচ্ছেন। সেই উপস্থাপক কোহলির কাছে জানতে চান, 'আপনার সব থেকে কম সময়ের ব্লাইন্ড ডেট কোনটা?' জবাবে কোহলি হাসতে হাসতে বলেন, 'আমি একবার একটা ব্লাইন্ড ডেটে গিয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে ফিরে এসেছি। মেয়েটাকে দেখার পরই ছুটে পালিয়েছিলাম।' এর পর সেই উপস্থাপক হেসে কোহলির কাছে জানতে চান, এমনটা করার কারণ কী! কোহলি উত্তরে বলেন, 'মেয়েটা বিশ্রী দেখতে ছিল!'

উল্লেখ্য, সম্প্রতি 'কফি উইথ করণ' টিভি শোতে এক প্রশ্নের জবাবে হার্দিক পাণ্ডিয়া বলেন, পার্টিতে গিয়ে তিনি মেয়েদের 'নড়াচড়া' লক্ষ করেন। এ ছাড়াও বাবা-মায়ের সঙ্গে তার খোলাখুলি সম্পর্ক বোঝাতে হার্দিক জানান যে, প্রথম 'ভার্জিনিটি' হারানোর দিনে তিনি বাড়িতে এসে বাবা-মাকে জানান, 'আজ করকে আয়া'! আরও একটি পার্টিতে হার্দিককে তার বাবা-মা জিজ্ঞেস করেন যে কে তার বিশেষ বান্ধবী? হার্দিক নাকি তখন সেই পার্টিতে উপস্থিত নারীদের মধ্যে থেকে গুনে শেষ করতে পারছিলেন না যে কে কার সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিলনা!

এছাড়া করণের প্রশ্নের উত্তরে লোকেশ রাহুল বলেন, ১৮ বছর বয়সে তার ঘরে কনডম পেয়ে তার মা ভয়ানক রেগে গিয়েছিলেন। তবে তার বাবা এটা ব্যবহার করতে দেখে তার পিঠ চাপড়ে দিয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

এই দুজনের মন্তব্য নিয়ে ভারতীয় দলের পক্ষ থেকে অধিনায়ক বিরাট কোহলি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, পাণ্ডিয়াদের মনোভাব কোনওভাবেই তার দলের ড্রেসিংরুমের সংস্কৃতির পরিচায়ক নয়। তিনি যে এমন বক্তব্যকে কখনওই সমর্থন করেন না, সে কথাও স্পষ্ট করেছিলেন তিনি। কিন্তু এমন একখানা ভিডিও আচমকাই সামনে চলে এসেছে, যেখানে পাণ্ডিয়াদের মতো কোহলিকেও প্রায় একইরকম আপত্তিকর মন্তব্য করতে শোনা যাচ্ছে। ঘটনা তাহলে কতদূর যাবে?

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা