kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ আগস্ট ২০১৯। ৭ ভাদ্র ১৪২৬। ২০ জিলহজ ১৪৪০

রেগে যাওয়া উচিত হয়নি : মাহমুদউল্লাহ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ জানুয়ারি, ২০১৯ ২১:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রেগে যাওয়া উচিত হয়নি : মাহমুদউল্লাহ

বিপিএলের সম্ভবত সবচেয়ে উত্তেজনাকর ম্যাচটি হয়ে গেল আজ। চিটাগং ভাইকিংস বনাম খুলনা টাইটান্সের ম্যাচটিতে প্রথমবারের মত খেলা সুপার ওভারে যায়। ১ রানে ম্যাচ জিতে বাজিমাত করে মুশফিকুর রহিমের চিটাগং। একইসঙ্গে টানা চার ম্যাচ হারের হতাশায় ডুবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের খুলনা। ম্যাচে বেশ কয়েকবার উত্তেজিত হতে দেখা গেছে খুলনা অধিনায়ককে। সংবাদ সম্মেলনে এর ব্যখ্যাও দিতে হলো তাকে।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে মাহমুদউল্লাহ 'সাইলেন্ট কিলার' হিসেবে পরিচিত। ঠাণ্ডা মাথার ক্রিকেটার হিসেবে খ্যাতি আছে। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রচুর চাপ সামলেছেন। সবখানেই পাশ করে গেছেন ঠাণ্ডা মাথা কাজে লাগিয়ে। কিন্তু আজকের হাইভোল্টেজ ম্যাচে একাধিকবার মেজাজ হারালেন তিনি। একের পর এক ম্যাচ হারের পর আজকের ম্যাচেও জয় হাতের মুঠো থেকে বেরিয়ে গেছে খুলনার। হয়তো সে কারণেই অধিনায়কের মেজাজ তিরিক্ষি ছিল।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে মাহমুদউল্লাহ বলেন, 'চাপ তো গত ১১-১২ বছর ধরে অনেক নিয়েছি। হয়তো আজ কিছুটা উত্তেজিত হয়ে গিয়েছিলাম। কাজটা উচিত হয়নি। এটা হয়তো খেলোয়াড়দের ওপর প্রভাব ফেলে। চেষ্টা করব সামনে শান্ত থাকার।'

আরও একটি ব্যাপার আজ নজর কেড়েছে সবার। সুপার ওভার সামলাতে পুরোপুরি বিদেশি-নির্ভর হয়ে গিয়েছিল দুই দল। দেশের ক্রিকেটারদের ওপর এই অনাস্থা কেন? জবাবে মাহমুদউল্লাহ বলেন, 'এটা টিম ম্যানেজমেন্টের বিষয়। আমার কাছে মনে হয়েছে স্টার্লিং অফ সাইডে খুব ভালো, ম্যালানও ভালো। আমরা সবাই ব্রাফেটের ব্যাপারে জানি। সব মিলিয়ে তাদের নির্বাচন করা হয়েছে। তিন নম্বরে আমিও যেতে পারতাম। কিন্তু আমার কাছে মনে হয়েছে স্টার্লিং বেশি ভালো। এই তিন অপশনে আমরা গিয়েছিলাম। এখানে মানিয়ে নেওয়ার কথা বললে, সুপার ওভারে কোপ আপের কিছু নেই। এখানে কোপাও অপশনে যেতে হবে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা