kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

টাইগারদের বোলিং তোপে দুইশর নিচেই থামল উইন্ডিজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৬:৪০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



টাইগারদের বোলিং তোপে দুইশর নিচেই থামল উইন্ডিজ

শের-ই-বাংলা মাতিয়ে রেখেছেন প্রচুর সমর্থক। ছবি : এএফপি

মিরপুর শের-ই-বাংলার উইকেটে আজ দেখা গেল টাইগার পেসারদের জয়জয়কার। বল হাতে ঝলসে উঠলেন মাশরাফি-মুস্তাফিজ-রুবেলরা। তিন পেসার তুলে নিয়েছেন ৭ উইকেট। দুই স্পিনার সাকিব-মিরাজ নিয়েছেন ২টি। ১০ ওভারে ৩০ রান দিয়ে সবচেয়ে কিপ্টে বোলিং করেছেন ৩ উইকেট নেওয়া মাশরাফি। টাইগারদের বোলিং তোপে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৯৫ রান তুলতে সক্ষম হয়েছে সফরকারীরা। ৩ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন মেহেদী মিরাজ, সাকিব আল হাসান এবং রুবেল হোসেন।

আজ রবিবার সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে উইকেটে থিতু হওয়ার চেষ্টা করছিলেন কাইরন পাওয়েল এবং শাই হোপ। দুই পাশ থেকেই স্পিন আক্রমণ দিয়ে বোলিং শুরু করেন অধিনায়ক মাশরাফি। যে কারণে রান উঠছিল না উইন্ডিজের। রান বাড়ানোর তাগিদে সাকিব আল হাসানকে তুলে মারতে গিয়ে রুবেল হোসেনের হাতে ধরা পড়েন কাইরন পাওয়েল (১০)।

এর মাঝেই দুইবার জীবন পান ড্যারেন ব্র্যাভো। মুস্তাফিজের বলে সহজ ক্যাচ ছাড়েন আরিফুল হক। এরপর রুবেলের বলে ব্র্যাভোর আরেকটি সহজ ক্যাচ ফস্কে যায় মুশফিকের গ্লাভস থেকে।ক্যারিবীয় টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানকে অবশেষে ফেরান অধিনায়ক মাশরাফি। তার বলে চোধ ধাঁধানো ক্যাচ নেন ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা তামিম ইকবাল। মাশরাফির কাটারে মিস টাইমিং করে বল হাওয়ায় ভাসিয়ে দেন ব্র্যাভো (১৯)। লং অফ থেকে এক্সট্রা কাভারের দিকে অনেকটা ছুটে সামনের দিকে পাখির মতো ডাইভ দিয়ে বল হাতে জমান তামিম।

উইন্ডিজের তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটান মাশরাফি। তার বলে ওপেনার শাই হোপ (৪৩) ধরা পড়েন মেহেদী মিরাজের হাতে। ৭৮ রানে তৃতীয় উইকেটর পতন হয় সফরকারীদের। এরপর স্যামুয়েলসকে জীবন দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিপজ্জনক হেটমায়ার (৬) বিধ্বংসী হয়ে ওঠার আগেই তাকে বোল্ড করে দেন মেহেদী হাসান মিরাজ। রোভম্যান পাওয়েল (১৪) মাশরাফির বলে লিটন দাসের হাতে ক্যাচ দিলে উইন্ডিজের ইনিংস অর্ধেক শেষ হয়।

মারলন স্যামুয়েলসের (২৫) উইকেটটিও লিটন দাসের কৃতিত্ব। রুবেল হোসেনের বল উড়িয়ে মেরেছিলেন স্যামুয়েলেস। লং অনের সীমানার ওপর অসাধারণ দক্ষতায় বলটি তালুবন্দি করেন লিটন। বিপদ সামলে ৭ম উইকেটে ৫১ রানের জুটি গড়েন রোস্টন চেইস এবং কিমো পল। ৩২ রান করা চেইস মুস্তাফিজুর রহমানের প্রথম শিকার হলে ভাঙে এই জুটি। শেষ ওভারে কিমো পলও (৩৭) মিরাজের দারুণ ক্যাচে মুস্তাফিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন। এক বল পরে দেবেন্দ্র বিশুকে কট অ্যান্ড বোল্ড করে 'কাটার মাস্টার' তৃতীয় শিকার ধরেন। বোলিং তোপে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৯৫ রানের বেশি করতে পারেনি উইন্ডিজ।

বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির ২০০তম ওয়ানডেতে দলে আছেন চার ওপেনার! তামিমের সঙ্গী লিটন দাস। তারপর তিন এবং চার নম্বরে নামতে যাচ্ছেন ইমরুল কায়েস এবং সৌম্য সরকার। চার ওপেনারের পাশাপাশি আছেন তিন পেসার। মাশরাফিকে সঙ্গ দেবেন মুস্তাফিজুর রহমান এবং রুবেল হোসেন। ঘূর্ণি আক্রমণে সাকিব আল হাসানের সঙ্গী মেহেদী হাসান মিরাজ। সর্বশেষ ওয়ানডে একাদশ থেকে বাদ পড়েছেন পাঁচজন। তারা হলেন মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, আবু হায়দার রনি এবং আরিফুল হক।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম (উইকেটকিপার), সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: কাইরান পাওয়েল, শাই হোপ, ড্যারেন ব্রাভো, মারলন স্যামুয়েলস, শিমরন হেটমায়ার, রভম্যান পাওয়েল, রোস্টন চেইস, কিমো পল, দেবেন্দ্র বিশু, কেমার রোচ, ওশান টমাস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা