kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শুভসংঘের উদ্যোগ : ওদের পায়ে ফুটবলের ‘যাদু’

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৪:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শুভসংঘের উদ্যোগ : ওদের পায়ে ফুটবলের ‘যাদু’

আমাদের সমাজ নারীকে মাঠে নামতে দেখলেই কটু কথার জালে আটকে ফেলে তাদের চারদিক। নিরুৎসাহিত করে তোলে প্রতিনিয়ত। নারী ফুটবল  নাকি গরীবের খেলা। মাত্র ২০/২৫ বছর আগেও কি কেউ ভাবতে পেরেছেন, বাংলাদেশের মেয়েরা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ফুটবল খেলে বিজয়ী হবেন? আজ আমরা সেই ভাবনাকে পেছনেই শুধু ফেলিনি, আমাদের মেয়েরা দক্ষিণ এশিয়ার সেরা মুকুটটি উপহার দিয়েছে গোটা জাতিকে।

বিজ্ঞাপন

জাতিও তাদের প্রাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছে প্রতিদানে।

আমাদের মেয়েদের এ বিজয়কে শুধু ফুটবল খেলায় জয় হিসেবে দেখা নয়, দেখতে হবে আন্দোলনের একটি পর্বের বিজয় হিসেবে। কারণ এই মেয়েরা হেসেখেলে মাঠে নামতে পারেনি, তাদের বাধার দেয়াল পেরিয়ে আসতে হয়েছে খেলার মাঠে। বাংলাদেশের নারী ফুটবলে শত প্রতিকূলতা, শত বাঁধার দেয়াল পেরিয়েই আজকের সাফল্যের ছোঁয়া। হাটি হাটি পা পা করে চলতে শুরু করা এই মেয়েরাই লাল সবুজের ফুটবলে এনেছে নতুন ভোর। দীর্ঘ এই পথটা পাড়ি দিতে নিজেদের জীবনে সংগ্রামের একেকটি অধ্যায় নতুন করে লিখেছেন বাংলার মেয়েরা।

দশরথের সবুজ গালিচায় নতুন ইতিহাস লেখার হাতছানি ছিলো ওদের সামনে। সাফের নতুন চ্যাম্পিয়ন হয়েই সেই ইতিহাসে তুলির শেষ আঁচড় দিয়েছে বাংলার বাঘিনীরা। বাংলার মাটি যখন আনন্দে মেতে, ঠিক এই সময়ে বাংলার নারীদের অনুপ্রেরণা থেকেই রাজশাহীর গোদাগারী উপজেলার শুভসংঘ বন্ধুরা আয়োজন করেছে নারীদের ফুটবল টুর্নামেন্ট।
 
‘ক্রীড়াই শক্তি, ক্রীড়াই বল’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলা শাখার আনোয়ারা ফহিম জিয়াউদ্দিন পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ হতে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটি প্রিতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়, উক্ত খেলায় আ. ফ. জি একাদশ ১-০ গোলে পদ্মা একাদশকে হারিয়ে জয়লাভ করে। ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হয়েছে সপ্তম শ্রেণির মোছা. শারমিন।  

শিক্ষার্থীদের খেলামুখী করতে এ আয়োজন বাস্তবায়নে সহযোগিতায় ছিলেন গোদাগাড়ী উপজেলা শুভসংঘ শাখার উপদেষ্টা. মো. জিয়াউর রহমান, সহকারী শিক্ষক গোদাগাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রহমান আ. ফ. জি. পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় আরো ছিলেন মোসা. তানজিলা আক্তার সহকারী শিক্ষক, আ. ফ. জি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সভাপতি মো. শাহাদাৎ হোসেন সহসভাপতি মো. শাহরিয়ার রিফাত সাধারণ সম্পাদক মো. ওয়াহিদুজ্জামান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল আকতার নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক রোদেলা জান্নাত, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সামির ইসতিয়াক সিফাত, মোশাররফ, আকতাব, আসিফ ইকবাল, হামিম,আনোয়ার পারভেজ।

সদস্য হিসেবে উপস্থিতি ছিলেন- মাশরুর, সিফাত, সোহান সাহরিয়ার, সজিব ও পারভেজ মারুফ।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, "পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলা অতন্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, এতে শিক্ষার্থীদের শরীর ও মন ভালো থাকে। লেখাপড়ায় মন বসে। নানা ধরনের অপকর্ম থেকে দূরে থাকে। "  
উপদেষ্টা জিয়াউর রহমান বলেন, "নারীরা কোনো অংশে কম নয়। নারীদের ইচ্ছাশক্তি সমাজকে সমৃদ্ধ করে তুলতে পারে। শুভসংঘের এমন আয়োজন নারী সমাজের অনুপ্রেরণা। "



সাতদিনের সেরা