kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ অক্টোবর ২০২২ । ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

শুভসংঘের উদ্যোগে বাল্যবিবাহকে লাল কার্ড দেখাল কিশোরীরা

ভোলা প্রতিনিধি   

১৭ আগস্ট, ২০২২ ১৮:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুভসংঘের উদ্যোগে বাল্যবিবাহকে লাল কার্ড দেখাল কিশোরীরা

ভোলায় শুভসংঘের উদ্যোগে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় শতাধিক স্কুলপড়ুয়া কিশোরী বাল্যবিবাহ না করার শপথ নেওয়ার পাশাপাশি বাল্যবিবাহকে লাল কার্ড দেখায়। আজ বুধবার (১৭ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম বাপ্তা আদর্শ স্কুল অ্যান্ড কলেজে শুভসংঘ ভোলা জেলা শাখার আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় শুভসংঘ ভোলা জেলার সভাপতি অমিতাভ রাজনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন পশ্চিম বাপ্তা আদর্শ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. মোজাম্মেল হোসেন জমাদ্দার, সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মনিরুল ইসলাম রোমান, সহকারী শিক্ষক মো. আলমগীর হোসেন, তপন চন্দ্র দাস, রাশেদ আলম, সালমা বেগম, কালের কণ্ঠের ভোলা জেলা প্রতিনিধি মো. ইকরামুল আলম, শুভসংঘের ভোলা জেলার সাধারণ সম্পাদক মো. ওয়ালিউল্লাহ নাহিদ।

বিজ্ঞাপন

শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য দেয় ওই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী মাইমুনা বেগম, তামান্না আক্তার, স্নেহা আক্তার, অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী সিনথিয়া নুসরাত, মুক্তা বেগম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শুভসংঘের বন্ধু মো. ইসমাইল, মো. ইয়ামিন, তাওহিদ, সুফিয়ান, মো. আরাফাত হোসেন শান্ত প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বাল্যবিবাহের কুফল তুলে ধরে বলেন, বাল্যবিবাহ একটি মেয়ের জীবন ধ্বংসের অন্যতম কারণ। এমনকি বাল্যবিবাহের কারণে মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যুর হার বৃদ্ধি পায়। এ কারণে একজন মেয়ে অকালে শিক্ষা থেকে ঝরে পড়ে। তাই সবাইকে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সচেতন হতে হবে।  

সচেতনতামূলক সভায় পশ্চিম বাপ্তা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শতাধিক কিশোরী অংশগ্রহণ করে। এ সময় কিশোরীরা ১৮ বছরের আগে বিয়ে না করার অঙ্গীকার করে। একই সাথে অন্য কিশোরীদেরও ১৮ বছরের আগে বিয়ে না দেওয়ার জন্য সচেতন করবে বলেও কথা দেয় তারা। পরে বাল্যবিবাহকে লাল কার্ড দেখিয়ে বাল্যবিবাহকে না বলে।
 



সাতদিনের সেরা