kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের খাদ্য সহায়তা

শুভসংঘ ডেস্ক    

৬ আগস্ট, ২০২২ ১২:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের খাদ্য সহায়তা

বশেমুরকৃবির উদ্যোগে কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের খাদ্য সহায়তা

কুড়িগ্রামের বন্যার্ত মানুষের পাশে খাদ্য সহায়তা নিয়ে দাঁড়িয়েছেন শুভসংঘ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজীবপুর উপজেলা শাখার বন্ধুরা। সম্প্রতি কুড়িগ্রাম জেলার সদর উপজেলার ধরলা নদীর পাঁচটি চরের বন্যাকবলিত ১৫৫টি পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল, রসুন, আলুসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরকৃবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বন্যাকবলিত মানুষ যখন মানবেতর জীবন যাপন করছে, তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সিদ্ধান্ত নেন একসঙ্গে তাঁরা বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াবেন। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সব সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সব  হলের সব সংগঠন থেকে সাধারণ সদস্যসহ সিনিয়র সদস্যদের নিয়ে আট সদস্যবিশিষ্ট পাঁচটি করে কমিটি গঠন করা হয়। তাদের ফান্ড সংগ্রহের দায়িত্ব ভাগ করে দেন বশেমুরকৃবি শুভসংঘের সহসভাপতি নূরুজ্জামান শাকির। এ কাজে এগিয়ে এসেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের আরো চারটি সংগঠন—প্রথম আলো বন্ধুসভা, ডিবেটিং সোসাইটি, সাহিত্য সম্ভার ও লিও ক্লাব অব বিএসএমআরএইউ।

সব কিছু সংগ্রহ করে কুড়িগ্রামে চলে যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম। প্রত্যাশা নামের একটি স্থানীয় সামাজিক সংগঠন পুরো কার্যক্রম পরিচালনা করতে সহায়তা করে। নেতৃত্বে ছিলেন বশেমুরকৃবির ১১তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের ছাত্র আহসান হাবিব রিপন ও ১৩তম ব্যাচের কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ উন্নয়ন অনুষদের ছাত্র সালাহউদ্দিন খন্দকার।

বশেমুরকৃবি শুভসংঘের সহসভাপতি নূরুজ্জামান শাকির বলেন, ‘আমরা যারা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী আছি, তারা পড়াশোনা করছি দেশের মানুষের অর্থে। তাই দেশবাসীর যেকোনো ক্রান্তিলগ্নে তাদের পাশে দাঁড়ানো শুধু আমাদের দায়িত্বই নয়, বরং আমরা দায়বদ্ধও বটে। ’

এ ছাড়া রাজীবপুর উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে ২০০ পরিবারের মাঝে পাঁচ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক কেজি তেল, এক কেজি চিনি ও এক কেজি মুড়ি বিতরণ করা হয়। অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে রান্না করা খাবার এবং অর্ধশতাধিক কিশোর-কিশোরীর মাঝে বিস্কুট, কেক ও চকোলেট বিতরণ করা হয়েছে। কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন প্রকল্পের জেন্ডার প্রমোটার, সংগীত, আবৃত্তি শিক্ষকের উদ্যোগে শুভসংঘের সার্বিক সহযোগিতায় এই কাজটি সম্পন্ন হয়। রাজীবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের মুন্সিপাড়া ঘাটে কোদালকাটি ইউনিয়নের শংকর মাধবপুর, বিলপাড়া, সাজাই আনন্দবাজার, মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের কাদেরের চর, বড়বেড় চর, সোন্ন্যাসীকান্দী ও কাচির চর এলাকায় নৌকা নিয়ে এসব সহায়তা বিতরণ করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা