kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩০০০ পরিবারে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের খাদ্যসহায়তা

আহসান হাবিব ও নাজমুল হুদা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে   

২০ আগস্ট, ২০২১ ১২:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩০০০ পরিবারে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের খাদ্যসহায়তা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলায় আরো ৪০০ অসহায় ও দুস্থ পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়েছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি ডাল ও তিন কেজি আটা দেওয়া হয়। এর মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার পাঁচটি উপজেলায় তিন হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। আজ শুক্রবার সদরের মহারাজপুর এসমা খাতুন চৌধুরী মহাবিদ্যালয় মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

খাদ্যসহায়তা পেয়ে মো. তোতা নামের এক কৃষক বলেন, আমরা গরিব মানুষ। তোমাগর চাল-ডাল পাছি এতে হাজার শুকুর। এটা ১০-১২ দিন খাইতে পারব। আল্লা যেন বসুন্ধরা মালিকের উপকার করে। যতদিন বাঁচবে মানুষের খেদমত করতে পারে। আল্লা যেন তোমাদের আরো উন্নতি করে।

ছবি বেগম বলেন, এই পেতথম সাহায্য পাইলাম। আল্লা বসুন্ধরাক ভালো থুইবে। সে জানি কোম্পানিতে লাভ করতে পারে, আমরা ফের পাই। সকল গরিব দুঃখির পাশে দাঁড়াতে পারে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত হয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মো. জিল্লার রহমান বলেন, আজকে বসুন্ধরা গ্রুপ আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। বিপদের সময় হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। আপনাদের ১০-১২ দিনের খাবার দিয়েছে। আমরা সবাই বসুন্ধরা গ্রুপের জন্য দোয়া করব। তারা যেন আরো বেশি বেশি আপনাদের পাশে দাঁড়াতে পারে। করোনার এই দুর্দিনে বসুন্ধরা গ্রুপ সারা দেশের অসহায় মানুষকেই কিছুদিনের খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে। তাই আমি বসুন্ধরা গ্রুপ ও কালের কন্ঠ শুভসংঘের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে আরো উপস্থিত ছিলেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজ টুয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি মো. রফিকুল আলম, ডেইলি সানের জেলা প্রতিনিধি কামাল সুকরানা, সাংবাদিক সাজিদ তৌহিদ, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, জেলা শাখার সভাপতি ফাইজুর রহমান মানি, শিবগঞ্জ উপজেলা শাখার মো. মাসুদ রানাসহ স্বেচ্ছাসেবী ফিরোজ আহমেদ হিরক, আবুল কালাম, মো. আলম, জালাল উদ্দিন, আব্দুর রহিম বিশ্বাস, বক্তার হোসেন।



সাতদিনের সেরা