kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

ভোলাহাটে ৩৫০ পরিবারের মুখে হাসি ফুটাল শুভসংঘ

আহসান হাবিব ও নাজমুল হুদা, চাপাইনবাবগঞ্জ থেকে   

১৮ আগস্ট, ২০২১ ১৬:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভোলাহাটে ৩৫০ পরিবারের মুখে হাসি ফুটাল শুভসংঘ

চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলায় ৩৫০ অসহায় পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়েছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি ডাল ও তিন কেজি আটা দেওয়া হয়।

আজ বুধবার উপজেলার ভোলাহাট মোহবুল্লাহ মহাবিদ্যালয় মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই খাদ্য সহায়তা দেয় শুভসংঘের সদস্যরা।

খাদ্যসামগ্রী পেয়ে আয়শা বেগম নামের এক উপকারভোগী বলেন, 'আমার স্বামী কৃষক। বয়স হইছে কাম করতে পারছে না। কোন ছেলে নাই। দুইটা মেয়ে আছে। আমাদের চলতে কষ্টে হয়। বসুন্ধরার এই খাবার পাইয়্যা ভালো লাগছে। ছেলেপেলে নিয়া খাব। দোয়া করব।'

সেলিনা খাতুন নামের আরেক উপকারভোগী বলেন, 'সরকার দিলে আমরা পাই না। নেতারা খাইয়ে ফেলে। তোমগেরটা পাইলাম। গরিবকে সাহায্য দিয়েছেন। আপনারা সুস্থভাবে থাকেন। দোয়া করি আমাগের জানি আরো দান করতে পারেন। এই খাবার দিয়া ১৫ দিন খাইতে পারব। আল্লা জানি আরো খাইতে দেয়।'

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত হয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শেখ মেহেদী ইসলাম বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় ভোলাহাট উপজেলায় ৩৫০ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছে। তাই আমি অন্তত থেকে তাদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। তারা সুদূর ঢাকা থেকে আমাদের ভোলাহাটে খাদ্য সহায়তা নিয়ে এসেছে। আমরা আশা করি তাদের এই সহযোগিতার হাত ভবিষ্যতে আরো প্রসারিত হবে। খাদ্য সহায়তা ছাড়াও আমাদের বিভিন্ন প্রয়োজনে বসুন্ধরা গ্রুপকে পাশে পাব।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, ভোলাহাট মোহবুল্লাহ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রহমত আলী, থানার উপপরিদর্শক আব্দুস সালাম, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, শিবগঞ্জ উপজেলা শাখার সেচ্ছাসেবী আবু সাদাত মোহাম্মদ সাইদ (খোকন), মো. মাসুদ রানা, কেতাবুল আলম, বরকত উল্লাহ, ভোলাহাট উপজেলার সাংবাদিক জামিল হোসেন ও গোলাম কবির।



সাতদিনের সেরা