kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

বিজলিদের ঘরে 'খুশির আলো' ছড়াল কালের কণ্ঠ শুভসংঘ

আহমেদ উল হক রানা ও নাজমুল হুদা, পাবনা থেকে   

১২ আগস্ট, ২০২১ ১৮:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিজলিদের ঘরে 'খুশির আলো' ছড়াল কালের কণ্ঠ শুভসংঘ

জহুরুল ইসলাম। শৈশবে বাবা মায়ের কাছে বেশ আদরেই বেড়ে উঠেছিলেন। পরিবার যখন জানলেন জহুরুল তৃতীয় লিঙ্গের তখন পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয় তাকে। জহুরুল হয়ে ওঠেন বিজলি। এখন এই পরিচয়েই বেঁচে আছে তিনি। হয়েছেন ১৬ জন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের গুরু। এদের সবাই একই পরিস্থিতির স্বীকার। কারো ভূমি নেই, ঘর নেই। সাত হাজার টাকার একটি ভাড়া বাসায় থাকেন তারা। কেউ কোন কাজের জন্যও তাদের নেয় না। মানুষের দোকানে দোকানে সাহায্য নিয়েই তাদের জীবিকা চলতো। কিন্তু করোনার পর অসহায়দের মত তাদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে পরেছে। লকডাউনে বিজলির দুটি গয়না বিক্রি করে খেয়ে না খেয়ে ছিলেন। তাদের এই দুঃসময়ে এগিয়ে এসেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। 

দেওয়া হয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্য সহায়তা। সহায়তা পেয়ে বিজলি বলেন, 'আমাদের কোন ঘরবাড়ি নেই। কেউ কাজ করতে নেয় না। দোকান থেকে সাহায্য নিয়ে চাল, ডাল কিনে খেতাম। আজকে বসুন্ধরা গ্রুপ আমাদেরকে খাবার দিলো। এই খাবার দিয়ে আমরা একমাস খেতে পারব। তাদের জন্য দোয়া করি। কিন্তু এরপর আমরা কি খাব। আমরা চাই আমাদের কোন কাজ দেওয়া হোক। আমরা কর্ম করে খাব।'

আজ বৃহস্পতিবার পাবনা জেলার ফরিদপুর উপজেলায় বিজলির মত তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ ও দুস্থ মিলিয়ে ৩০০ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। এছাড়া সকলের মাঝে মাস্ক বিতরণ ও করোনা সুরক্ষায় সচেতনামূলক পরামর্শ দেওয়া হয়।

উপজেলার পৌর মহিলা কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় এই খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত হয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন গোলাম বলেন, সরকারের পর বসুন্ধরা গ্রুপ দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় খাদ্য সহায়তা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। আমাদের উপজেলায়ও ৩০০ দুস্থ পরিবারের মাঝে তারা খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে। এজন্য আমি উপজেলার পক্ষ থেকে বসুন্ধরা গ্রুপকে আর শুভসংঘকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। বর্তমানে করোনায় পৃথিবী থমকে আছে। মানুষ প্রতিনিয়ত মারা যাচ্ছে। এই সময় আপনারা সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন সতর্ক থাকবেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেসমিন আরা, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদ রানা, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, পৌর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ও শুভসংঘের সেচ্ছাসেবী মেহেদী হাসান, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শেখ রাফসান যানী সজিবসহ নাইম খান, সুচিত্রা পূজা, স্বর্ণা, শাহেরা আক্তার উর্মি, ফরিদপুর উপজেলার শুভসংঘের সেচ্ছাসেবী রহমান, শাহাদাত হোসেন, আকরাম, নাহিদ, তারেক, বিপ্লব, অভিজিৎ, মিতু, আসমানী, তমা, আতিক, ইমন, বিল্পব, মনির, জাহিদ, কামরুল, সোহান, হাসানুর, সাগর, তালহা।



সাতদিনের সেরা