kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

শুভসংঘের খাদ্য সহায়তায় শৃঙ্খলা দেখে মুগ্ধ সাবেক এমপি শফিকুল

আতাউর রহমান রাজু ও নাজমুল হুদা, সিরাজগঞ্জ থেকে   

৮ আগস্ট, ২০২১ ১৯:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শুভসংঘের খাদ্য সহায়তায় শৃঙ্খলা দেখে মুগ্ধ সাবেক এমপি শফিকুল

হঠাৎ ভারি বর্ষণ। স্যাঁতস্যাঁতে কর্দমাক্ত মাঠ। ফের ঘাম ঝরানো রৌদ্র। প্রকৃতির এমন বৈরী আবহাওয়ায় খালি পায়ে কাদামাটি মাড়িয়ে বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা। আজ সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলায় ৩০০ অতিদরিদ্র পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেয় তারা।

রবিবার উপজেলার সরকারি আকবর আলী কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় সকলের মাঝে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি ডাল ও তিন কেজি আটা দেওয়া হয়। এ ছাড়া সকলের মাঝে মাস্ক বিতরণ ও করোনা সুরক্ষায় সচেতনামূলক পরামর্শ দেওয়া হয়।

বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্য সহায়তা পেয়ে মাহমুদা বেগম নামের এক উপকারভোগী বলেন, তোমাগের খাবার পাইয়্যা কয়ডা দিন খাইতে পারমু। তোমরা বাঁচলি আমাগোরে বাঁচাবার পারবা। তোমরা বাঁচি থাকো বাবা।

আলেয়া বেগম নামের আরেক উপকারভোগী বলেন, তোমাগের চাল, ডাল, আটা দিয়া ছাউল-পাউল নিয়া আমরা পাঁচজন মানুষ খাইতে পারমু। আমাগের জন্য বসুন্ধরা মালিকের মন কানছে, তার জন্য আল্লার মন কানবে বাবা। দোয়া করি আমরা জানি আবার পাই বাবা।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত হয়ে সিরাজগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম শফি বলেন, করোনার মধ্যে আমাদের সরকার যে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে তা খুবই সীমিত। আজ বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় কালের কণ্ঠ শুভসংঘ আপনাদের হাতে হাতে খাবার পৌঁছে দিয়েছে। তারা যেভাবে খাবার দিল আমরা নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে পারি না। আমি এর আগে কখনো শুভসংঘের মতো এত সুশৃঙ্খলভাবে খাদ্য সহায়তা দিতে দেখিনি। তাই বসুন্ধরা গ্রুপ ও শুভসংঘকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে আরো উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র এস এম নজরুল ইসলাম, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, নিউজ টোয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি আব্দুস সামাদ সায়েম, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মো. ইমরান হোসেন, সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, সিরাজগঞ্জ জেলা কমিটির উপদেষ্টা প্রদীপ সাহা, উল্লাপাড়া শাখার সভাপতি শিমুল সরকার, সাধারণ সম্পাদক ফাহিম ফয়সাল সুমন, জুয়েল রানা, কফি আনান, শাহ নেওয়াজ সাদী, জ্যোতির্ময় চক্রবর্তী, আমিনুল ইসলাম, নিয়াজ আহমেদ, নয়ন ইসলাম, সৌরভ সরকার, রঞ্জন শীল, প্লাবন কর্মকার, উদয় কুমার বিশ্বাস, জাহিদুল ইসলাম, সাব্বির আহমেদ, তাসরিফ আহমেদ, অমৃত কুমার মহন্ত, দেওয়ান আলতাফ হোসেন, তন্ময় সরকার, সাক্ষর কুণ্ডু, পিয়াশ কুমার, সনক কুমার বিশ্বাস, আকাশ কুমার, রায়হান ও উত্তরা ইউনিভার্সিটির সাবেক সভাপতি আলমগীর হোসেন রনি।



সাতদিনের সেরা