kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

ফুলছড়িতে ৩০০ অসহায় পরিবারে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ত্রাণ

অমিতাভ দাস হিমুন ও নাজমুল হুদা, গাইবান্ধা থেকে   

১৩ জুলাই, ২০২১ ১৫:০৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফুলছড়িতে ৩০০ অসহায় পরিবারে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ত্রাণ

গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলায় ৩০০ অসহায় ও অতিদরিদ্র পরিবারের মাঝে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। এ ছাড়া সবার মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয় এবং করোনা সচেতনতামূলক পরামর্শও দেওয়া হয়। আজ মঙ্গলবার কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি মহাবিদ্যালয় মাঠে বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় এই ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

স্বামী নেই ৮০ পেরোনো খোদেজা বেগমের। এই বয়সেও মানুষের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করে নিজের পেট চালান। বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ সহায়তা পেয়ে তিনি বলেন, কষ্ট করে খাতিছি। আমি একলা মানুষ এই খাবার দিয়া ২৫ দিন খাওয়া যাবে। আল্লা তোমাদের বাঁচি রাখুক। তোমরা আমাদের আরো সাহায্য কইরো। 

খোদেজার মতো বয়স হয়েছে আঙ্গুর রানীরও। বৃদ্ধ বয়সে পানি গরম করে দেওয়ারও কেউ নেই। নিজেই একবেলা ভাত রেঁধে তিন বেলা খান। বয়স্ক ভাতা ছাড়া পান না কোনো সহযোগিতা। বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ পেয়ে খুশি হয়েছেন তিনি। আঙ্গুর রানী বলেন, আমাদের চাল-ডাল দিলা। তোমাদের শরীর-শক্তি ভালো করুক। আল্লায় বাঁচি রাখুক।

বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ সহায়তায় অংশ নিয়ে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন বলেন, আজ বসুন্ধরা গ্রুপ অতিদরিদ্র ও কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে, তাই প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমি তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ জানাই। তারা দুর্যোগে সব সময় মানুষের পাশে এগিয়ে আসে। বিভিন্ন সময় মানুষকে সহায়তা করে। এক মাসের বেশি সময় ধরে উত্তরবঙ্গে শুভসংঘের সদস্যরা মানুষের কাছে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে। তারা অনেক কষ্ট করছে। তাদের প্রতি আমাদের অগাধ ভালোবাসা রইল। করোনার এই সময়টাতে সুস্থ থাকতে আপনারা সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। মাস্ক পরবেন, প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হবেন না। একজন আরেকজনের থেকে তিন ফুট দূরে থাকবেন। সরকারি নিয়ম মেনে চলবেন।

ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রবিউল হাসান, ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু রায়হান দোলন, কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রাশেদুজ্জামান রোকন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক তাবিউর রহমান প্রধান, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শামীম আল মামুন, সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, গাইবান্ধা জেলার সভাপতি তৌহিদা মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস লতাসহ অন্যদের মধ্যে সামিউল ইসলাম, রওজাতুন্নাহার লাবণ্য, মিনহাজুর রহমান নয়ন, সারাফ সোহাইবা নিহা, উম্মে কুলছুম তালুকদার, দেবী সাহা, রেহানা আক্তার রিসাত, উম্মে সালমা বৃষ্টি, তানহা, ফুলছড়ি উপজেলা শুভসংঘের সভাপতি শিমুল হাউলিদার, অর্থবিষয়ক সম্পাদক শাহী হোসেন শাকিল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ফুয়াদ হাসান, নারীবিষয়ক সম্পাদক চয়নিকা আক্তার সিমা, আপ্যায়নবিষয়ক সম্পাদক মারিয়া সরকার তমা, ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক সোহাগ সরকার, উপ-ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক সোহান আকন্দসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শুভসংঘের আবু হুরাইরা আতিক, ফরহাদ আহমেদ, জসিম উদ্দীন, আরবি আক্তার প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা