kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

শুভসংঘের সহযোগিতায় ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন মর্জিনা

মাদারীপুর প্রতিনিধি   

২৫ মে, ২০২১ ১৮:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুভসংঘের সহযোগিতায় ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন মর্জিনা

মাদারীপুরে শুভসংঘের উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুরে ঝালমুড়ি বিক্রিতা মর্জিনা বেগমকে দোকানে বিক্রির জন্য মালামাল কিনে দেওয়া হয়েছে। এর উদ্বোধন করেন মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস। দোকান ও দোকানের মালামাল পেয়ে অসহায় মর্জিনা এখন ঘুড়ে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ‘ঘুরে ঘুরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন মর্জিনা’ এই শিরোনামে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। এতে করে বিষয়টি অনেকের নজরে আসে। গত ১৫ এপ্রিল  মাদারীপুরের ছাত্রলীগের নেত্রী সাথী আক্তারের উদ্যোগে মর্জিনা বেগমকে কর্মসংস্থানের জন্য শহরের লেকপারে একটি ভ্রাম্যমাণ দোকানের ব্যবস্থা করে দেন। তবে দোকান হলেও বিক্রয় সামগ্রীর অভাবে দোকান চালু করতে পারেননি মর্জিনা বেগম।

পরবর্তীতে শুভসংঘের উদ্যোগে অনেকেই মর্জিনাকে সযোগিতায় এগিয়ে আসে। দোকানে মালামাল কেনার জন্য আর্থিকভাবে মর্জিনাকে সহযোগিতা করেন মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস, শুভসংঘের সদস্য ওহিদুজ্জামান কাজল, সাংবাদিক মেহেদী হাসান সোহাগ, ফরিদ উদ্দিন মুফতি, গাউসুর রহমান, বিধান মজুমদার, মাদারীপুর ২নম্বর শকুনি এলাকার বাসিন্দা বাদশা সরদার। এ ছাড়া সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন শুভসংঘের কে এম জুবায়ের জাহিদ, রাসেল হাওলাদার প্রমুখ।

মর্জিনা বেগম বলেন, আগে রাস্তায় ঝালমুড়ি বিক্রি করতাম। এতে খুব কষ্ট হত। পরবর্তীতে দোকানের ব্যবস্থা হলেও বিক্রি করার মত কোনো মাল ছিল না। কিন্তু এখন বিক্রি করার মত দোকানে মাল এর ব্যবস্থা হয়েছে। আমি অনেক খুশি। আমরা জন্য যারা যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস বলেন, একজন নারী হয়েও তিনি থেমে থাকেননি। বাঁচার জন্য রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ঝাড়মুড়ি বিক্রি করেছেন। তাই এই সংগ্রামী নারীকে কিছু সহযোগিতা করেছি। সে এখন দোকান চালু করতে পারবে। পরবর্তীতে আরো সহযোগিতা করা হবে।



সাতদিনের সেরা