kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

এতিম শিশুদের মুখে হাসি ফোটাল গোবিন্দগঞ্জ শুভসংঘ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

২০ এপ্রিল, ২০২১ ২০:১৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এতিম শিশুদের মুখে হাসি ফোটাল গোবিন্দগঞ্জ শুভসংঘ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরের রাজাহার ইউনিয়নের প্রত্যন্ত ডাঙ্গামারা গ্রামের রোজাদার মাদরাসাছাত্র ও এতিম শিশু কিশোররা মঙ্গলবার ছিল আনন্দ উচ্ছল। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা শুভসংঘের বন্ধুরা সারাদিন তাদের পাশে থেকে করোনাকালে কিভাবে সাবধানে থাকতে হবে, তাদের এ ব্যাপারে নানা তথ্য দেন। পাশাপাশি ফজিলাতুন্নেছা হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা চত্বরে ইফতার মাহফিলের জন্য খাবার তৈরিতেও ব্যস্ত ছিলেন তাদের একটি অংশ। মাদরাসা বন্ধ থাকায় ছাত্রদের বাড়ি থেকে খবর দিয়ে আসতে বলা হয়। এতিম শিশুরা আগে থেকেই সেখানে ছিল।

এরই এক ফাঁকে ৪০ জন শিশু কিশোর এবং শিক্ষক কর্মচারীদের মধ্যে বিতরণ করা হয় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান। এই পর্বটি সমন্বয় করেন উপজেলা শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমেদ বিপ্লব।

দুপুরে সকলকে নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা শুভসংঘের সহসভাপতি মাহফুজ রহমান মুন। প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে যুক্ত হন গোবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. শাহ সুলতান তালুকদার। বিশেষ অতিথি ফজিলাতুন্নেছা হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা প্রধানশিক্ষক হাফেজ ক্বারী মো. আবু হেনা প্রথমে কোরআন থেকে পাঠ করেন এবং স্বাগত বক্তব্য দেন।

কভিড-১৯ নিয়ে সচেতনতামূলক মূল বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহসভাপতি রাশিদ তাকি রাশু ও অর্থ বিষয়ক সম্পাদক অয়ন সুলতান। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিয়াম সিদ্দিক, রেজওয়ান রনি, দিলশাদ জাহান সম্রাট, শেখ মোহাম্মদ সাঈদ, শাহাদাৎ আলম স্বাধীন, শিহাব আকন্দ, আল আবিদ সিয়াম, সজীব আকন্দ, আহসানুল হক জুয়েল, এস এম সাকিব শরীফ শান্ত, সাঈদ পাপ্পু, নুরুন্নবী, শরিফুল, অন্তর, মুবিন ও বাপ্পী ঘোষ।

প্রধান অতিথি ড. শাহ সুলতান তালুকদার বলেন, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বিভিন্ন ধরণের সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড ও জনকল্যান মূলক কাজ ব্যপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভেতর থেকে আসা এতিম ও মাদরাসাছাত্রদের জন্য করোনাকালে সংক্রমণ প্রতিরোধসামগ্রী বিতরণ করে তারা নিজেদের মানবিকতার পরিচয় রেখেছে।

প্রধান শিক্ষক হাফেজ ক্বারী মো. আবু হেনা বলেন, করোনাকালে মাদরাসা বন্ধ। এতিমখানাটি সঙ্গত কারণেই চালু রয়েছে। মাদরাসাছাত্ররা আজ শুভসংঘের আহ্বানে এখানে এসেছে। প্রত্যন্ত এলাকার শিশু কিশোররা এইটুকু ভালবাসা ও মমতা পেয়ে অনেক খুশি।

এতিম শিশু আল হাফিস হাসিমুখে জানায়, এবার গ্রামের মানুষ নিজেরাই অনেক কষ্টে আছেন। শুভসংঘ আমাদের কথা ভেবেছে এতেই আমরা খুশি।

ইফতারের আয়োজনে ছিল মুড়ি, বুট, পিঁয়াজু, বেগুনী, বুঁদিয়া, জিলেপি, আপেল, কলাসহ অনেক সামগ্রী। পরে সবার জন্য খিচুরি আর মাংসের আয়োজনও রাখা হয়। ইফতার পূর্ব দোয়ায় বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মানুষের করোনা মুক্তি ও সার্বিক কল্যান কামনা করা হয়। এ সময় কালের কণ্ঠ পরিবার ও শুভসংঘের সারাদেশের কমকর্তা ও সদস্যদের জন্য বিশেষ মোনাজাত করেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক।

উপজেলা শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমেদ বিপ্লব বলেন, প্রায় সারাদিন প্রত্যন্ত এলাকার এতিম ও মাদরাসার শিশু কিশোরদের সাথে কাটিয়ে তাদের সাথে ইফতার করেছি। শিশুদের হাসিমাখা মুখ দেখে আমাদের পরিশ্রম স্বার্থক হয়েছে বলে মনে করছি। ভবিষ্যতে শুভসংঘ ওদের জন্য আরো কাজ করবে।



সাতদিনের সেরা