kalerkantho

বুধবার । ২৮ বৈশাখ ১৪২৮। ১১ মে ২০২১। ২৮ রমজান ১৪৪২

এক এতিম শিশুর চিকিৎসায় এগিয়ে এলেন শুভসংঘের বন্ধুরা

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

২ এপ্রিল, ২০২১ ১৩:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক এতিম শিশুর চিকিৎসায় এগিয়ে এলেন শুভসংঘের বন্ধুরা

কেশবপুরে আজ শুক্রবার সকালে শুভসংঘের উদ্যোগে ৬ মাস বয়সী এতিম শিশু প্রশান্ত দাসের চিকিৎসার খরচসহ দুধ ও নতুন পোশাক দেওয়া হয়েছে। শিশুটির জন্মগ্রহণের একমাস পরেই তার বাবা উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের শান্ত দাস মারা যান। মা লতা দাস রোগাক্রান্ত হয়ে সন্তানকে শ্বশুর-শাশুড়ির কাছে রেখে বাবার বাড়ি চলে গেছেন। এদিকে ছেলে শান্ত দাসের মৃত্যুর শোকাবস্থা কাটতে না কাটতেই তারই বাবা বাটুল দাস গত ১৮ মার্চ মৃত্যুবরণ করেন। স্বামী-সন্তানকে হারিয়ে নাতী প্রশান্তকে নিয়ে তার দাদী মমতা দাস পড়েছেন বিপাকে। সংসারের ঘানি টানার পাশাপাশি শিশু প্রশান্তের জন্য দুধ ও খাদ্য সংগ্রহ করতে তার দাদী এখন দিশেহারা।

শিশুটি অসুস্থ হওয়ার খবর পেয়ে উপজেলা শুভসংঘের বন্ধুরা ১টি বড় কৌটার দুধ, ৩টি নতুন পোশাক ও চিকিৎসার জন্য ২ হাজার টাকা নিয়ে ওই বাড়িতে হাজির হন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শুভসংঘের সভাপতি খন্দকার শফি, উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফারুকে আজম, ক্রীড়া সম্পাদক শওকত হোসেন, নির্বাহী সদস্য ও কালের কণ্ঠের প্রতিনিধি নূরুল ইসলাম খান, ইউপি সদস্য রেহেনা ফিরোজ, শিক্ষিক হাসিনা খাতুন, কামরুজ্জামান রাজু, সোহেল পারভেজ প্রমুখ। শিশু প্রশান্ত দাসের চিকিৎসার জন্য নগদ ২ হাজার টাকা, কৌটার দুধ ও নতুন পোশাক দাদী মমতা দাসের হাতে তুলে দেন শুভসংঘের বন্ধুরা। 

এলাকার রঞ্জন দাস, শিবুপদ দাস, বিকাশ দাসসহ অন্যান্য প্রতিবেশীরা শুভসংঘের বন্ধুদের এমন উদ্যোগে সন্তোষ প্রকাশ করেন।



সাতদিনের সেরা