kalerkantho

বুধবার । ২৮ বৈশাখ ১৪২৮। ১১ মে ২০২১। ২৮ রমজান ১৪৪২

শুভসংঘের সহযোগিতা, খুশিতে কাঁদলেন জোছনা বেগম

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০২১ ১৬:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুভসংঘের সহযোগিতা, খুশিতে কাঁদলেন জোছনা বেগম

স্বামী হাশেম মোল্লার মৃত্যুর পর মানবিক জীবনযাপন করছেন ৭৫ বছর বয়সী জোছনা বেগম। নিঃসন্তান জোছনা বেগমের সংসার চলে স্বামীর পেনশনের সাড়ে পাঁচ হাজার টাকায়। গত মঙ্গলবার ব্যাংক থেকে পেনশনের টাকা তুলে সোনারগাঁ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে যান। সেখান থেকে ব্যাগ কেটে টাকা নিয়ে যায় চোর। টাকা হারিয়ে হাসপাতালে কাঁদতে থাকেন জোছনা বেগম। খবর পেয়ে আজ মঙ্গলবার সকালে সোনারগাঁ উপজেলা শুভসংঘ জোছনা বেগমের হাতে নগদ ছয় হাজার টাকা তুলে দেন। এসময় তিনি খুশিতে কেঁদে ফেলেন।

কালের কণ্ঠ শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক ও সোনারগাঁ উপজেলা প্রতিনিধি গাজী মোবারক জানান, গত মঙ্গলবার হাসপাতালে এসে একজন বৃদ্ধ নারীকে কাঁদতে দেখে এগিয়ে আসি। পরে জানতে পারি জোছনা বেগম (৭০) তার স্বামীর পেনশনের সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে হাসপাতালে টিকিটের জন্য লাইনে দাঁড়ান। কে বা কারা তার হাতে থাকা টাকার ব্যাগ কেটে পুরো টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। উপজেলা শুভসংঘের উপদেষ্টা ও পিরোজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমকে বিষয়টি জানালে তিনি পাঁচ হাজার টাকা এবং সমাজসেবক আবুল হাশেম রতন জোসনা বেগমের সহযোগিতা করেন।

জোসনা বেগম জানান, 'এ টেহা দিয়া আমি পুরা এক মাসের খাওন ও অষুধ খাইয়া বাইচ্চা থাহি। হেদিন টেহা হারিয়ে চোখে হৌড়া ফুল দেখছিলাম। ভাড়ার লইগা আমারে যে ৫০০ টেহা দিছে হেই টেহা থাইক্কা আমি এই কয়দিন চাইল কিন্না খাইছি। ভালা কামের লইগা যে পত্রিকা আছে হেইডা আমি আজকা জানলাম। আল্লায় আমনেগো শুভসংঘের হগলের উফরে রকমত দেউক এই দোয়া করি।'

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. পলাশ কুমার সাহা, প্রধান হিসাব রক্ষক নজরুল ইসলাম, শুভসংঘের কবির আহমেদ প্রধান, মোস্তাক আহম্মেদ, শেখ ফরিদ, শাহজালাল, কামরুল ইসলাম, গাজী আলমগীর, রবিউল ইসলাম ও আবু কালাম প্রমূখ।

ডা. পলাশ কুমার সাহা বলেন, বৃদ্ধা মায়ের চোখে আনন্দের জল দেখে আমার ভিতর অদ্ভুত এক ভালো লাগা কাজ করছিল। শুভসংঘ অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে যেভাবে সহযোগিতা করছে সত্যিই তা অত্যন্ত আনন্দের ও গর্বের।



সাতদিনের সেরা