kalerkantho

শনিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৪ রজব ১৪৪২

কুড়িগ্রামে এতিম শীতার্তদের পাশে শুভসংঘ

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুড়িগ্রামে এতিম শীতার্তদের পাশে শুভসংঘ

সকাল থেকে আকাশ কুয়াশাছন্ন মাঘ মাসের তিনদিন শুরু হয়েছে শৈত্য প্রবাহ সূর্যের দেখা নেই শীতে কাঁপছে কুড়িগ্রামের মানুষ। ঠিক সেই সময়ে দুই শতাধিক এতিম শিক্ষার্থী ও এলাকার শীর্তাত মানুষের হাতে কম্বল তুলে দিয়েছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বিকাল ৩টায় রাজিবপুরের কবরস্থান বাইতুল কোরআন নূরানী ও হাফিজিয়া মাদরাসায় এতিম শিক্ষার্থী ও এলাকার শীর্তাত মানুষের মাঝে উপজেলা শুভসংঘের সহযোগিতায় কম্বল বিতরণ করা হয়।

রাজিবপুর উপজেলা শুভসংঘ সভাপতি শহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক সোহেল রানা স্বপ্নর সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজিবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো, সাবেক উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি সুরুত জামান, শিবের ডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আকবর আলী, উপজেলা শুভসংঘের উপদেষ্টা ফরিদুল ইসলাম ফরিদ। 

আকবর হোসেন হিরো বলেন, কালের কণ্ঠ শুভসংঘ আমাদের কুড়িগ্রামের মানুষের শীতে কষ্টের কথা চিন্তা করে কম্বল দিয়েছে এই জন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। কালের কণ্ঠের মতো আমাদের কুড়িগ্রামবাশীর মানুষের পাশে যেন বিত্তবানরা দাঁড়ায় সে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

উপজেলা শুভসংঘের উপদেষ্টা ফরিদুল ইসলাম ফরিদ বলেন, আমাদের কুড়িগ্রামের মানুষের কথা চিন্তা করে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ যে শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এজন্য সংশ্লীষ্টদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। কালের কণ্ঠ শুভসংঘের মত অন্য সংগঠনগুলো যদি কুড়িগ্রামের মানুষের কথা ভাবতো তাহলে এই এলাকার শীতার্ত মানুষদের একটু হলেও শীতের কষ্ট লাঘব হতো।

প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম বলেন, কালের কণ্ঠ শুভসংঘ সদস্যরা আমাদের মাদরাসার শিক্ষার্থীদের কষ্টের কথা জেনে কম্বল তুলে দেওয়ার জন্য আমরা তাদের জন্য দোয়া ও উন্নতি কামনা করছি।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাদরাসা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইবনে সউদ, উপজেলা শুভসংঘ সাধারণ সম্পাদক মাইদুল ইসলাম, সহসভাপতি আমজাদ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সিরাজ ও মোকলেছুর রহমান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আতিকুর রহমান খোকন, কার্যকরী সদস্য শাকিল, নজরুল ইসলাম, সাজ্জাতুর রহমান শরীফ, রাসেল মিয়া প্রমূখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা