kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

সীতাকুণ্ডে গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বারআউলিয়ার মধ্যম সোনাইছড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। নিহতের নাম মো. বেলাল হোসেন। তিনি উপজেলার কুমিরা ইউনিয়নের কোর্টপাড়ার মোহাম্মদ হাসেমের ছেলে।

জানা যায়, বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৪টার দিকে বারআউলিয়ার মধ্যম সোনাইছড়ি এলাকার মো. ইব্রাহিমের বাড়িতে একদল গরুচোর হানা দেয়। এ সময় বাড়ির মালিক টের পেয়ে চিৎকার শুরু করলে আশপাশের মানুষ এগিয়ে আসেন। চোরদের কয়েকজন পালিয়ে গেলেও ওই যুবক ধরা পড়ে যায়। এ সময় এলাকাবাসী তাঁকে গণপিটুনি দিলে তিনি গুরুতর আহত হন। এ অবস্থায় সকাল আনুমানিক ১০টা পর্যন্ত সড়কে পাশে পড়েছিলেন তিনি। এক পর্যায়ে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর পরনে জিন্সের প্যান্ট থাকলেও গায়ে কিছু ছিল না। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

সোনাইছড়ির ইউপি চেয়ারম্যান মুনীর আহমেদ বলেন, ‘ওই এলাকায় প্রায়ই গরু চুরির ঘটনা ঘটত। এ কারণে এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত ছিলেন। ওই চোরকে হাতেনাতে পেয়ে পিটুনি দিলে এ ঘটনা ঘটে।’

সীতাকুণ্ড থানার ওসি মো. দেলওয়ার হোসেন বলেন, ‘গণপিটুনিতে গরুচোর নিহতের খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়ে লাশ উদ্ধার করি। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, সীতাকুণ্ডের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রতিক সময়ে গরু চুরির ঘটনা বেড়েছে। কিছুদিন আগেও বড়দারোগারহাটে ডা. মোস্তাফিজুর রহমানের বাড়ির গোয়াল থেকে ৪টি গরু চুরি হয়। এ ছাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে প্রায় রাতেই হানা দেয় চোরের দল।

 

মন্তব্য