kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

‘কথকতা’র প্রকাশনা উৎসবে ইমদাদুল হক মিলন

সাহিত্যে পড়ার বিকল্প নেই

জাকারিয়া জামান   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২১:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাহিত্যে পড়ার বিকল্প নেই

‘বাংলাদেশে অনেক বড় বড় গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি আছে কিন্তু কোনো একটি গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মরতদের নিয়ে একটি সাহিত্য পত্রিকা বের হয় এমন ঘটনা ইতিহাসে নেই। ব্যাবিলন গ্রুপ সেই ইতিহাস তৈরি করলো। তাদের এমন অসামান্য আয়োজনের জন্য তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

ব্যাবিলন গ্রুপের বার্ষিক সাহিত্য পত্রিকা ‘কথকতা’র ১৩তম প্রকাশনা উৎসবে কথাগুলো বলেন কথাসাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ব্যাবিলন গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন ইমদাদুল হক মিলন। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন ব্যাবিলন গ্রুপের পরিচালক এমদাদুল ইসলাম, গ্রুপ সিইও কাজী মহিউদ্দীন, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মদ হাসান, সাবেক ডিজিএম প্রদীপ কুমার দত্ত, সিনিয়র ম্যানেজার (এইচআর এন্ড কমপ্লায়েন্স) মাহমুদ আলম সিদ্দিকিসহ ব্যাবিলন গ্রুপের কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ।

অতিথিদের বক্তব্যের মাঝে পত্রিকাটির গত সংখ্যার সেরা লেখকদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইমদাদুল হক মিলন। এ ছাড়াও যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়েছে তাদেরকেও পুরস্কৃত করা হয়।

যারা এই পত্রিকায় লিখেছেন তাদের উদ্দেশ্য ইমদাদুল হক মিলন বলেন, লেখত এবং সাহিত্যিক ব্যাপারটা ভিন্ন। লিখলেই লেখক হওয়া যায় কিন্তু সাহিত্যিক হতে হলে লেখার সাথে সাথে অনেক পড়তে হবে। লেখার সাথে জীবনের সম্পর্ক মিলেই গড়ে ওঠে সাহিত্য। নিজের অন্তর আলোকিত করতে প্রতিদিনই একটু হলেও লিখুন এবং পড়ুন। লেখালেখির জন্য চর্চাটা জরুরি।

তিনি আরো বলেন, নিজেরে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মীদের উৎসাহিত করতে ব্যাবিলন গ্রুপ নিভৃতে সাহিত্যের জন্য যে কাজটি করছে এটা অনন্য। কথকতার সম্পাদক এমদাদুল ইসলামকে আমি অভিবাদন জানাই।

ব্যাবিলন গ্রুপের পরিচালক এমদাদুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন একটা কাজে লেগে থাকলে নিজের অনেক উন্নতি হয়। যারা কথকতায় প্রথমে লিখতো তাদের লেখার মান এখন অনেক উন্নত হয়েছে। নতুন নতুন বিষয় জানতে হলে পড়তে হবে এবং এর মর্মটা বোঝার চেষ্টা করতে হবে। বেশি করে পড়লে আপনারা আরো অনেক কিছু জানতে পারবেন।

সবশেষে কথকতার মোড়ক উন্মোচন করেন ইমদাদুল হক মিলন। পত্রিকাটি সম্পাদনা করেছেন ব্যাবিলন গ্রুপের পরিচালক এমদাদুল ইসলাম এবং সহ সম্পাদনায় ছিলেন মাহমুদ আলম সিদ্দিকি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা