kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

Facebook থেকে

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



Facebook থেকে

এক্সাম

এক্সাম [২০১৮]

মিস্ট্রি, সাসপেন্স

 

♦ আটজন মেধাবী প্রতিযোগী একটি প্রতিষ্ঠিত কম্পানির আকর্ষণীয় এবং ক্ষমতাশীল পদের চাকরির নিয়োগ পরীক্ষা দেয়। বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করে ফাইনাল ধাপে পৌঁছে। পরীক্ষার হলে পৌঁছে তারা দেখতে পায় প্রত্যেকের টেবিলে একটি পেপার রয়েছে। তাদের যে কক্ষে পরীক্ষা হবে তার একটিমাত্র দরজা, কোনো জানালা নেই। পরীক্ষক নির্দিষ্ট সময়ে এসে বললেন তাদের একটি মাত্র সাধারণ প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে, যার জন্য সময় ৮০ মিনিট। তবে তাদের তিনটি নিয়ম মেনে চলতে হবে, না মানলে বাদ। এক. পরীক্ষক কিংবা পরীক্ষার হলে থাকা একজন মাত্র গার্ডের সঙ্গে কোনো ধরনের কথা বলা যাবে না। দ্বিতীয়ত. হল থেকে বের হওয়া যাবে না। তিন. পরীক্ষার খাতা অন্যকে দেখালেও বাদ পড়তে হবে। পরীক্ষক ঘড়ি চালু করে দিয়ে বের হয়ে যান। ক্যান্ডিডেটরা প্রশ্নপত্র উল্টে দেখতে পারলেন তাতে আসলে কিছুই নেই! কী ছিল প্রশ্নটি? প্রতিযোগীদের ভেতরে চাকরিটি কে পায়? এটা কি কোনো পরীক্ষা ছিল, নাকি অন্য কিছু? সব প্রশ্নের উত্তর পাবেন মুভির শেষ মুহূর্তে এবং রীতিমতো চমকে উঠবেন। পরিচালকের অন্য কোনো ছবি আগে দেখিনি, তবে এই খেলাটা তিনি দারুণ খেলেছেন। চিত্রনাট্য, সিনেমাটোগ্রাফি, অভিনয়সহ সব কিছুই দুর্দান্ত ছিল। থ্রিলার, সাসপেন্স যাঁরা ভালোবাসেন তাঁদের জন্য মাস্ট সি।

অয়ন রিজু [সিনেমাখোর গ্রুপের পোস্ট]

 

মন্তব্য