kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

এবার মোদি

৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এবার মোদি

ভারতে বায়োপিকের হিড়িকে এবার মুক্তি পাচ্ছে দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বায়োপিক। আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ছবিটি নিয়ে লিখেছেন খালিদ জামিল

 

লোকসভা নির্বাচনের মাত্র এক সপ্তাহ আগে দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর বায়োপিক বড় পর্দায়! ‘রাজনৈতিক প্রচারণামূলক ছবি’ বলে যথারীতি আপত্তি জানিয়েছে বিরোধী দলগুলো। তবে তাতে কাজ হয়নি। ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ মুক্তি পাচ্ছে ঠিকই। ওমাং কুমারের পরিচালনায় ছবিটিতে মোদির চরিত্র করেছেন বিবেক ওবেরয়। নামের সঙ্গে ‘পিএম’ শব্দটা জুড়ে দেওয়া হলেও ছবিতে উঠে এসেছে মোদির প্রধানমন্ত্রী না থাকার সময়ের গল্পও। গুরুত্ব পেয়েছে ২০০২ সালে গুজরাটে দাঙ্গার সময় তাঁর মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময়টাও। সে সময় ধর্মীয় দাঙ্গায় মারা গিয়েছিল প্রায় এক হাজার মানুষ। মোদির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি হিন্দুদের প্রতি পক্ষপাতিত্ব দেখিয়েছেন। সিনেমায় সেই প্রসঙ্গটি কিভাবে দেখানো হয়েছে এটা নিয়ে কৌতূহল আছে সমালোচকদের মধ্যে। শুধু রাজনৈতিক অঙ্গন নয়, ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ নিয়ে ক্ষোভ বলিউডেও। সালমান খান খেপেছেন সবচেয়ে বেশি। কারণ তাঁর অসমাপ্ত ছবি ‘দাস’-এর গান ‘সুনো গোর কি দুনিয়া ওয়ালো’ অনুমতি না নিয়েই ব্যবহার করা হয়েছে সিনেমায়। গান নিয়ে ঝামেলা এখানেই শেষ নয়। ট্রেলারে বলা হয়েছে, ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’র গান লিখেছেন জাভেদ আখতার। কিন্তু জাভেদ আখতারের স্ত্রী শাবানা আজমি এক টুইটে বলেন, ‘দর্শককে ভুল পথে নিতে এসব নাম ব্যবহার করা হচ্ছে।’ একইভাবে নিজের নাম দেখে আপত্তি জানিয়েছেন আরেক গীতিকার সামিরও। প্রযোজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সিনেমায় জাভেদ ও সামিরের লেখা পুরনো গান ব্যবহার করা হয়েছে, এ জন্যই ট্রেলারে তাঁদের নাম।

ছবি নিয়ে বিতর্ক হয়েছে আরো। শুটিংয়ের সময় প্রযোজক বেআইনিভাবে রেলওয়ে ও অন্যান্য সরকারি প্রতিষ্ঠানের সুবিধা নিয়েছেন বলে খবর।

এত বিতর্ক হয়েছে বলেই কিনা ছবি মুক্তির আগে তেমন প্রচারণা চালানো হয়নি। তবে অনেক বিতর্ক থাকলেও প্রযোজক সন্দীপ সিংয়ের দাবি, বিজেপির রাজনীতি, ভোট—এসবের সঙ্গে এই সিনেমার কোনো সম্পর্ক নেই। ব্যক্তি মোদির অসাধারণ গল্পই শুধু পর্দায় তুলে আনতে চেয়েছেন তিনি।

মন্তব্য