kalerkantho

সোমবার  । ১৬ চৈত্র ১৪২৬। ৩০ মার্চ ২০২০। ৪ শাবান ১৪৪১

ঈশ্বরকে বাঁচাও

জুয়েল রাজ   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৪:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈশ্বরকে বাঁচাও

দিল্লির খবর কি জানেন কিছু?

আমি বললাম, হুম,
এই পর্যন্ত ৩৪ জন
তিনি বললেন, কে কাকে মারছে?
বললাম, মানুষ মানুষ কে মারছে।
প্রশ্নকর্তা সহকর্মীটি অবাক হয়ে তাকালেন!
না মানে...
কাকে কারা মারছে?
আবার ও বললাম মানুষ মানুষকে মারছে।
তিনি এবার ঝেড়ে কেশে বললেন
না মানে..
হিন্দু না মুসলামান?
এর কোনও উত্তর আমার জানা ছিল না।
আমি শুধু মুখের দিকে তাকিয়ে জানতে চাইলাম।
যারা লাশ হয়েছে এরা কি মানুষ ছিল না?
বিশ্বাস করুন এই লাশের সারি মানুষের।
বিশ্বাস করুন এই লাশের সারি
কোনও পিতার, কোনও ভাইয়ের,
এই লাশের সারি তোমাদের ঈশ্বরের
এই লাশের সারি তোমাদের আল্লাহর
এই লাশের সারি আশরাফুল মাখলুকাতের।

চুপচাপ শুয়ে আছে ৩৪ টি মানুষ
চুপচাপ শুয়ে আছে ৩৪ টি লাশ।
অপরাধ, বিচার, আইন, আদালত
কিছুই নেই
তাঁরা জানে ও না কেন তাঁরা বাঁধা সাদা কাপড়ে।
সারিবদ্ধ লাশের মিছিল থেকে চিৎকার আসছে,
আমরা যারা এখানে শুয়ে আছি
এইখানে হিন্দু মুসলমান পরিচয় মুছে
লাশ হয়ে গেছি।
আমাদেরও সবার ঈশ্বর ছিলেন
আমাদের সবার আল্লাহ ছিলেন
পুত্র কন্যা জায়া জননী ছিলেন
আজ যাদের, জিঘাংসা,
বিদ্রোহ আর ক্রোধের আগুনে
জ্বলছে মিনার,
তোমাদের হনুমানের কসম
এ আগুন থামাও।
আমাদের জীবনের কসম
এ আগুন নিভাও।

মিনারের চাঁদ তারায়
উড়ন্ত হনুমান পতাকায়
মসজিদ কিংবা গীর্জায়
মন্দির কিংবা প্যাগোডায়
তোমাদের ইমারতের স্তুপে
চাপা পড়ে আছেন
ইশ্বর স্বয়ং।
তাঁকে উদ্ধার করো
তাঁকে বাঁচিয়ে রাখো।
মানুষ না বাঁচলে ঈশ্বরও বাঁচবেন না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা