kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

ভিডিও দিয়ে ব্লাকমেইল

কারাগারে ইউপি সদস্যের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে হামলা

চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুমিল্লার চান্দিনায় প্রেমিকযুগলের নগ্ন ভিডিও ধারণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ইউপি সদস্য কারাগারে মারা গেছেন বলে গুজব রটিয়ে ভুক্তভোগী ছেলে-মেয়ে ও আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালানো হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে দফায় দফায় উপজেলার দোবারিয়া গ্রামে ওই প্রেমিকযুগল এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান মাস্টারের বাড়িতে হামলা চালায় গ্রেপ্তারকৃত ইউপি সদস্যের লোকেরা। এ ঘটনার পর থেকে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ওই প্রেমিকযুগল। শুক্রবার রাত থেকে তারা বাড়িছাড়া।

মামলার বাদী ভুক্তভোগী প্রেমিকা জানায়, ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেন ও তাঁর সঙ্গীরা তাকে ও তার প্রেমিককে আলাদাভাবে বাড়ি থেকে ডেকে একটি নির্মাণাধীন ভবনে নিয়ে তাদের নগ্ন ভিডিও ধারণ করে। পরে তাদের পরিবারের কাছ থেকে প্রায় এক লাখ টাকা আদায় করে তাদের ছেড়ে দেয়। সম্প্রতি আবারও চাঁদা দাবি করে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। কিন্তু তাদের পরিবার চাঁদা না দেওয়ায় ওই ভিডিওটি বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতে শুরু করে চক্রটি। বাধ্য হয়ে বৃহস্পতিবার তারা চান্দিনা থানায় লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ আনোয়ারকে গ্রেপ্তার করে। পরদিন শুক্রবার বিকেলে আনোয়ারের স্ত্রী জানান, কারাগারে তাঁর স্বামীর মৃত্যু হয়েছে। এরপরই হামলার ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান মাস্টার বলেন, ‘এলাকাবাসী বিষয়টি সমাধানের জন্য আমার ওপর দায়িত্ব দেয়। কিন্তু আনোয়ার আমার কোনো কথাই শুনেনি। গত বৃহস্পতিবার ছেলে-মেয়ে উভয়ে মিলে থানায় অভিযোগ করায় সে আমাকে সন্দেহ করে। সেই সন্দেহ থেকেই মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে আমার তিনটি দোকান ভাঙচুর করে ও মালামাল লুট করে নেয়। একইসঙ্গে ছেলে ও মেয়ের বাড়িতেও হামলা চালিয়েছে অন্তত ৩০-৪০ জন।’ এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার ওসি মোহাম্মদ আবুল ফয়সল জানান, মেম্বারের মৃত্যুর ঘটনাটি গুজব। রাতে ছেলে-মেয়ে ও সুলতান মাস্টারের বাড়িতে হামলার ঘটনায় পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা