kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

হাজীগঞ্জে ২৩ মাদরাসার ২০টিতেই নেই বিজ্ঞান শাখা

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সরকার যেখানে বিজ্ঞান আর কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে সেখানে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের ২৩টি মাদরাসার মধ্যে ২০টিতেই নেই বিজ্ঞান শাখা। মাত্র তিনটি মাদরাসায় বিজ্ঞান শাখা থাকলেও নেই কোনো কারিগরি শাখা। আবার মাদরাসা শিক্ষার পাঠ্যক্রমে নেই ব্যবসায় শিক্ষা শাখা। ফলে ইচ্ছা থাকা স্বত্ত্ব্বেও অনেক মাদরাসাশিক্ষার্থীকে বাধ্য হয়ে মানবিক শাখায় পড়তে হচ্ছে। কিছু কারণে মাদরাসা প্রধানরা বিজ্ঞান শাখা খুলতে অনিচ্ছুক বলে জানা গেছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় ৯টি ফাজিল, একটি কামিল, তিনটি আলিম ও ১০টি দাখিল মাদরাসা আছে। এর মধ্যে শুধু হাজীগঞ্জ আহম্মদিয়া কামিল মাদরাসা, রাজারগাঁও ফাজিল মাদরাসা ও বেলচোঁ কারিমাবাদ ফাজিল মাদরাসায় বিজ্ঞান বিভাগ আছে। আবার ২৩টি মাদরাসার কোনোটিতে কারিগরি শাখা নেই।

অন্যদিকে হাজেরা আলী ক্যাডেট দাখিল মাদরাসা ও আলী আহমেদ ইসলামিয়া একাডেমিক দাখিল মাদরাসা বাদে বাকি ২১টিই এমপিওভুক্ত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাদরাসা শিক্ষক বলেন, ‘আসলে মফস্বলের মাদরাসাগুলোতে গরিব আর অপেক্ষাকৃত কম মেধাবীরা পড়তে আসে। আর বিজ্ঞান শাখা না থাকার কারণে আমরা শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানে ভর্তির জন্য নিরুৎসাহিত করি। ফলে তারা মানবিকে ভর্তি হয়ে যায়। অনেক শিক্ষার্থী বিজ্ঞান শাখা না পেলে অন্যত্র চলে যায়—এমন রেকর্ডও আমাদের আছে।’ সাদ্রা হামিদিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. আবু বকর বলেন, ‘আমার এখানে একাডেমিক ভবন আর পর্যাপ্ত শিক্ষার্থী না থাকার কারণে বিজ্ঞান শাখা খুলতে সমস্যা হচ্ছে। সম্প্রতি সংসদ সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর-উত্তম নতুন ভবনের জন্য ডিও লেটার দিয়েছেন। ভবনের কাজ শেষ হলেই আমরা বিজ্ঞান শাখা চালু করব।’ বিজ্ঞান শাখা না থাকার প্রসঙ্গে বাকিলা ফাজিল ডিগ্রি মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. ওমর ফারুক বলেন, ‘আমরা এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে গিয়েছি।’ অন্যদিকে মাদরাসাগুলো বিজ্ঞান শিক্ষায় কেন বিমুখ—এ প্রশ্নের উত্তরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আসলে কে বিমুখ আর কে বিমুখ নয়—তা আমাদের বোঝার উপায় নেই।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা